নিউজ

বাংলার দিকে দ্রুত বেগে ঘনিয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় ‘গুলাব’, কড়া সতর্কতা জারি করল আবহাওয়া অফিস

প্রবল বেগে ধেয়ে আসতে চলেছে ঘূর্ণিঝড় ‘গুলাব’। যার প্রভাবে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা থাকছে দক্ষিণবঙ্গের প্রায় সব জেলাতেই। তবে আগামীতে ধেয়ে আসা সাইক্লোন নামকরণ করল কারা? এমন অদ্ভুত নামের সৃষ্টিই বা কোথা থেকে!

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, প্রত্যেকটি সাইক্লোনের নামকরণের দায়িত্ব থাকে কোনো-না-কোনো দেশ। সাইক্লোন গুলাবের নামকরণ করেছে ভারতের প্রতিবেশী রাষ্ট্র পাকিস্তান। ইতিমধ্যেই ওড়িশা এবং অন্ধ্রপ্রদেশ রাজ্যের উপকূলে ঘূর্ণিঝড়ের সর্তকতা জারি করা হয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দপ্তরের তরফ থেকে। ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে পশ্চিমবঙ্গেও ভারী বৃষ্টির সর্তকতা জারি রয়েছে। বৃষ্টির সাথে সাথে বইবে ঝড়ো হাওয়া।

গোপালপুরের কাছে কলিঙ্গ পত্র নামে রবিবার বিকালে তিনটে থেকে পাঁচটার মধ্যে আছে পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে ঘূর্ণিঝড় গুলাবের। পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগর এর উপরে তৈরি হওয়া নিম্নচাপ ঘনীভূত হয়ে সুস্পষ্ট নিম্নচাপে নিজের রূপ পরিবর্তন করেছে। আগামী ১২ ঘণ্টায় এর প্রতিক্রিয়া আরো জোরালো হবে বলে জানা যাচ্ছে।

আলিপুর আবহাওয়া দফতর সূত্রে আরও জানানো হয়েছে, ওড়িশার দক্ষিণে ব্রহ্মপুর এবং অন্ধপ্রদেশের উত্তরে বিশাখাপত্তনমের মাঝ বরাবর কলিঙ্গপত্তনমের উপর দিয়ে স্থলভাগ অতিক্রম করে অগ্রসর হবে ঘূর্ণিঝড় গুলাব। যার জেরে বৃষ্টি হওয়ার আশঙ্কা থাকছে পূর্ব এবং পশ্চিম মেদিনীপুরে।

বিশেষ সর্তকতা অবলম্বন করার বার্তা দেয়া হয়েছে মৎস্যজীবীদের উদ্দেশ্যে। খুব কড়া ভাবে জারি করা হয়েছে সর্তকতা এবং তাদের সমুদ্রে যেতে কড়াভাবে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দপ্তরের তরফ থেকে। এর সাথে তৈরি হয়েছে দুর্যোগ মোকাবিলা বাহিনী এবং কন্ট্রোল রুম। প্রসঙ্গত বিশেষভাবে উল্লেখ্য, গত ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের সময় রাজ্যের সমুদ্র উপকূলবর্তী প্রত্যেকটি জায়গা লন্ডভন্ড হতে দেখা গিয়েছিল। ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাব সরাসরি না পড়লেও ভালোভাবেই আছড়ে পড়তে পারে বলে জানানো হয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর থেকে।

Related Articles

Back to top button