নিউজ

যশের পর ফের ধেয়ে আসছে নতুন ঘূর্ণিঝড়! আগামী দুদিন ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দিল হাওয়া অফিস

আবারও নিম্নচাপের ভ্রুকুটি দেখা যাচ্ছে বঙ্গোপসাগরে। আগামী ১১ই জুন, শুক্রবার বঙ্গোপসাগরে একটি নিম্নচাপ তৈরি হওয়ার সম্ভাবনা আছে বলে জানাচ্ছে মৌসম ভবন। তবে নতুন এই নিম্নচাপের ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হওয়ার সম্ভাবনা আছে কিনা সে বিষয়ে নির্দিষ্ট করে কিছু জানানো হয়নি মৌসম ভবনের তরফে। কেরলে বর্ষা ঢুকে গিয়েছে গত ৩রা জুন। বাংলায় এখনো ঠিকভাবে বর্ষা প্রবেশ না করলেও নিম্নচাপের জন্য গত কয়েকদিন রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় বর্ষা হচ্ছে।

মৌসম ভবন জানিয়েছে নতুন এই নিম্নচাপের হাত ধরে উত্তর ভারতে বর্ষার পথ প্রশস্ত হবে। আগামী শনি এবং রবিবারের মধ্যে বাংলা, বিহার এবং ঝাড়খণ্ডের অধিকাংশ এলাকাতেই বর্ষা প্রবেশ করবে। এই নিম্নচাপের প্রভাবে বৃহস্পতিবার থেকেই পূর্ব ভারতের অধিকাংশ এলাকাতেই বৃষ্টি শুরু হয়ে যাবে। ওড়িশায় ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা আছে এই নিম্নচাপের প্রভাবে, এমনটাই জানাচ্ছে মৌসম ভবন। শুক্রবার ঝাড়খন্ডেও ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা আছে।

বৃহস্পতি এবং শুক্রবার গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের একাধিক জেলায় বৃষ্টি হবে বলে জানাচ্ছে আবহাওয়া দপ্তর। সমগ্র বাংলায় বর্ষা না ঢুকলেও উত্তরবঙ্গের অধিকাংশ জেলাতে ইতিমধ্যেই বর্ষা ঢুকে গিয়েছে। হাওয়া অফিস জানাচ্ছে, আগামী কয়েকদিন উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিতে মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টি হবে। উত্তরবঙ্গের আট জেলায় এই বৃষ্টির পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে।

বুধবার দার্জিলিংয়ে ৭০ থেকে ২০০ মিলিমিটার পর্যন্ত বৃষ্টি হতে পারে। একই পরিমাণ বৃষ্টির সম্ভাবনা আছে উত্তরবঙ্গের কালিম্পঙ, জলপাইগুড়ি এবং কোচবিহার জেলাতেও। বাকি জেলাগুলিতে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টির সম্ভাবনা আছে। উত্তরবঙ্গের পাশাপাশি বৃষ্টির সম্ভাবনা আছে দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতেও। কলকাতা সহ দক্ষিণবঙ্গের একাধিক জেলাতে আগামী কয়েকদিন বৃষ্টি হবে বলে জানাচ্ছে আবহাওয়া দপ্তর।

Back to top button