নিউজবিনোদন

‘মিঠাই’ ধারাবাহিকে নতুন ট্যুইস্ট, কালরাত্রিতে চোর এল মোদক পরিবারে!

অবশেষে আবার ছন্দে ফিরেছে মোদক পরিবার। মিঠাইয়ের মা তাঁকে জনাই নিয়ে যাওয়ার পর থেকেই পরিবারে লক্ষ্য করা গিয়েছিল ছন্দপতন। দাদু গৃহত্যাগী হয়ে আশ্রয় নিয়েছিলেন আশ্রমে। দাদুকে ফেরাতে মরিয়া দাদুর নাতি মিঠাইকে (Mithai) নিয়ে হাজির হয়েছিলেন গুরুদেবের আশ্রমে। সেখানেই মিঠাইকে ফিল্মি কায়দায় হাঁটু গেড়ে বিয়ের প্রস্তাব দেয় উচ্ছেবাবু। তারপর ঘটা করে আশ্রমে বসে মিঠাই সিদ্ধার্থের বিয়ের আসর। কিন্তু এত আনন্দের মধ্যে আবার কেলেঙ্কারি মোদক পরিবারে, কিন্তু ব্যাপারটা কি?

কালরাত্রিতে হঠাৎই পরিবারের চোর! সিদ্ধার্থ মিঠাইয়ের মধ্যে দূরত্ব কমানোর পাশাপাশি দাদুর প্রতি ঠাম্মার রাগ ভাঙাতে এখন ব্যস্ত সবাই। নিজের সংসার ছেড়ে আশ্রমে চলে যাওয়ার পর দাদুর ওপর বেজায় চটেছেন ঠাম্মি। এদিকে সিদ্ধার্থ মিঠাইয়ের কালরাত্রি হলেও দাদুর সঙ্গে দূরত্ব বজায় রাখছেন দাদুর আদরের বউ।

এমনকি দাদুর সঙ্গে না শুয়ে মিঠাইয়ের সঙ্গে তিনি শোয়ার ব্যবস্থা করে ফেলেছেন। ওদিকে দাদুর পাশে শুতে পাঠিয়েছেন দাদুর নাতিকে। তবে এসবের মাঝে হঠাৎ এই পরিবারে হাজির চোরবাবাজীবন! তবে এই চোর বাইরের কেউ নন, বাড়ির মালিকই এলেন চোর সেজে। ধরা পড়লেন ঠাম্মির কাছে। ঘুমের সময় ঠাম্মির কানের সুরসুরি দিচ্ছিলেন দাদু। যার জন্য আচমকাই ঘুম ভেঙে যায় ঠাম্মির।

অন্ধকারে ঘুম ভেঙ্গে হঠাৎ একজনকে দেখে ঠাম্মির চোর চোর বলে চেচিয়ে ওঠেন। চিৎকার চেঁচামেচির জন্য সেই ঘরে চলে আসেন পরিবারের বাকি সদস্যরা। কিন্তু তার পরেও ঠিক হলো কি দাদু ঠাম্মির মান অভিমানের পর্ব? এত কিছুর পরেও কি দাদুর মন পাবেন ঠাম্মা নাকি এখনো রেগেই থাকবেন দাদুর উপর? সবকিছুর প্রশ্ন পেতে হলে চোখ রাখতে হবে রাত আটটায় জি বাংলার (Zee Bangla) পর্দায়।

Related Articles

Back to top button