লাইফ স্টাইল

পোস্তর দাম আকাশছোঁয়া, স্বাদ ও গুণমান বজায় রাখতে এই তিন উপকরণ ব্যবহার করুন পোস্তর বদলে

বাঙালির রান্নাঘরে পোস্ত থাকবে না এমনটা ভাবাই যায় না। পোস্ত এমন একটা উপাদান যা বাঙালির রান্না ঘরে প্রায় ওষুধের মতো। সে ঘটি হোক বা বাঙালি সর্বদাই তাদের রান্নাঘরে বিরাজমান। আলু পোস্ত, বিউলির ডাল, আলুর খোসা ভাজা উপরে একটু পোস্ত ছড়িয়ে দিয়ে নিলেই ব্যাস। এক থালা ভাত হয়তো তা দিয়ে খাওয়া হয়ে যাবে। তবে এই পোস্তর দামই এখন আকাশ ছোঁয়া।

পোস্তর দাম আকাশছোঁয়া, স্বাদ ও গুণমান বজায় রাখতে এই তিন উপকরণ ব্যবহার করুন পোস্তর বদলে
ছবি: পোস্ত

একটা সময় এরকম ছিল যে পোস্তর সাধারন একটা পদ দিলেই মন খুশি হয়ে যেত সকলে। বিশেষত আলু পোস্ত দিয়ে বাঙালির দুপুরের খাওয়াটা বেশ জমে যেত। তবে এই পোস্তটি এখন আগুন দামে বাঙালির মন ভেঙে গিয়েছে। পোস্ত দিয়ে এখন অনেক বেশি পদ বানানো তো দূরের কথা একটা পদ বানাতেও পোস্তর দামে হাত দিতে ছ্যাকা লাগে।

তবে এই পোস্তর বদলে আপনি তিনটি জিনিস ব্যবহার করতে পারেন। যা হয়তো পোস্তর মত হুবহু সাদ আপনাকে দিতে পারবে না তবে একটা কথা বলতে পারি আপনার খুব একটা খারাপও লাগবে না। যে জিনিসগুলো আপনি পোস্তর পরিবর্তে ব্যবহার করতে পারেন সেগুলি নিচে বর্ণনা করা হলো :

১) চিনা বাদাম বাটা : চিনা বাদাম একটি খুব উপাদেয় খাদ্য। বিশেষত বাড়ন্ত বাচ্চাদের চিনাবাদাম খাওয়ানো তাদের স্বাস্থ্যের পক্ষে খুবই উপকারী। চিনা বাদামের মধ্যে একটি ন্যাচারাল অয়েল পাওয়া যায়। তা মানুষের শরীরের পক্ষে খুবই উপাদেয়। আপনি আপনার রান্নায় পোস্ত বাটা পরিবর্তে চিনা বাদাম বাটা ব্যবহার করতেই পারেন।

২) সাদা তিল বাটা – চিনা বাদাম এর মতোই সাদা তেল ও খুবই উপাদেয়। বিশেষত যারা ডায়াবেটিসে রোগী, যে মেয়েদের পিরিয়ড সংক্রান্ত নানান রকম সমস্যা রয়েছে অথবা ওভারিয়ান সমস্যা আছে তারা ডাক্তারের কাছ থেকে পরামর্শ নিয়ে পোস্ত বাটা খেতেই পারেন। তবে পোস্তর বদলে অবশ্যই সাদা তিল বাটাও খাওয়া যেতে পারে। এক্ষেত্রেও একটা কথা বলে রাখি হয়তো পোস্তর মতো অত সুস্বাদু হবে না তবে খুব একটা খারাপ লাগবে না।

৩) চারমগজ বাটা : একটা কথা হয়তো অনেকেই জানেন না যে তরমুজের বীজ কেই চালমগজ বলা হয়। এই চারমগজ খাওয়াও শরীরের জন্য খুবই উপাদেয়। এই চালমগজও পোস্তর পরিবর্তে ব্যবহার করা যেতে পারে।

Related Articles

Back to top button