লাইফ স্টাইল

সয়াবিন দিয়ে বানিয়ে ফেলুন অসাধারণ একটি রেসিপি, যা হার মানাবে মাছ-মাংসের স্বাদকেও, শিখে নিন রেসিপি

রোজ রোজ সোয়াবিনের তরকারি কিংবা সোয়াবিন ভাজার মতো রেসিপি ট্রাই না করে এবারে একেবারে ট্রাই করা যেতে পারে নতুনত্ব সোয়াবিনের কোন রেসিপি। যে রেসিপি একবার খেলে দরকার লাগবে না মাছ মাংসের ও। একেবারে ইউনিক ধরনের এই রেসিপি।

দেখে নেওয়া যাক সয়াবিনের এই ইউনিক রেসিপি বানানোর জন্য কি কি উপকরণ প্রয়োজনীয়।

উপকরণ:
১. টমেটো
২. রসুন
৩. পেঁয়াজ
৪. আদা
৫. হলুদ
৬. ধনে গুঁড়ো
৭. লঙ্কাগুঁড়ো
৮. সামান্য পরিমাণে জল
৯. শাহী গরম মসলা
১০. কাসুরি মেথি
১১. সোয়াবিন
১২. গোটা জিরে
১৩. চা পাতা

এবারে দেখে নেয়া যাক সয়াবিনের এই ইউনিক রেসিপি বানানোর জন্য কি কি প্রণালী অবলম্বন করা যেতে পারে:

১. প্রথমেই বাজার থেকে এনে রাখা পেঁয়াজগুলিকে কুচি কুচি করে কাটতে হবে। আর কিছু পেঁয়াজ রেখে দিতে হবে মিক্সিতে পেস্ট করার জন্য। এরই সঙ্গে আগে থেকে বানিয়ে রাখতে হবে দু’কাপ জলে কিছু পরিমাণে লিকার চা।
২. এবারে একটি মিক্সি বোল নিয়ে তাতে পেঁয়াজ, টমেটো, আদা, রসুন পেস্ট করে একটি মশলা বানিয়ে নিতে হবে।
৩. অন্য একটি বাটিতে হলুদ গুঁড়ো, লঙ্কাগুঁড়ো, ধনে গুঁড়ো এবং জিরেগুঁড়ো নিয়ে সামান্য পরিমাণে জল দিয়ে আরও একটি পেস্ট বানাতে হবে।
৪. তারপর একটি কড়াইয়ে জল গরম করে এনে রাখা সোয়াবিনগুলোকে ভাল করে সিদ্ধ করে নিতে হবে। সোয়াবিন গুলি খুব ভালোভাবে সিদ্ধ হয়ে গেলে নামিয়ে নিতে হবে।
৫. সোয়াবিনগুলি ঠান্ডা হয়ে গেলে তার মধ্যে কার জল গুলো সব বার করে নিতে হবে।
৬. এবার গ্যাসে একটি কড়াইতে পরিমান মত সাদা তেল গরম করে জিরে ফোড়ন দিয়ে দিতে হবে, দিয়ে দিতে হবে আগে থেকে কেটে রাখা পেঁয়াজগুলিকেও। এরপর মিশিয়ে নিতে হবে স্বাদমতো নুন।

৭. পেঁয়াজ হালকা হালকা গোল্ডেন কালারের হয়ে গেলেই আগে থেকে বানিয়ে রাখা মসলার পেস্টগুলি মিশিয়ে নিতে হবে।
৮. মসলাগুলিকে কষানো হয়ে গেলে এবার দিয়ে দিতে পরিমাণমতো বেকিং সোডা। বেকিং সোডা দেওয়ার পরই গ্রেভির রং আরও গাঢ় হতে থাকবে বেশ কিছুক্ষণ নাড়াচাড়া করে কষিয়ে নিতে হবে।
৯. এরপরে দিয়ে দিতে হবে সিদ্ধ করে রাখা সোয়াবিনগুলো। কষিয়ে রাখা মসলার সাথে খুব ভালো করে মিশিয়ে তিন থেকে চার মিনিট খুব ভালো করে রান্না করতে হবে। এরপর দিতে হবে পরিমাণমতো নুন এবং সামান্য পরিমাণে চিনি।
১০. আগে থেকে তৈরি করে রাখা চা পাতা দিয়ে ফুটিয়ে জলটা গ্রেভি বানানোর জন্য দিনের মধ্যে দিতে হবে সোয়াবিনের মধ্যে, দিয়ে দিতে হবে এক টেবিল-চামচ শাহী গরম মসলা।
১১. গরম মসলা খুব ভালোভাবে মেশান হয়ে গেলে ৫ থেকে ৬ মিনিট খুব ভালো করে নাড়াচাড়া করে রান্না করে নিতে হবে।
২২. এরপর দিতে হবে এক টেবিল-চামচ কাসুরি মেথি।

কাসুরি মেথি দেয়ার পর গরম গরম নামিয়ে নিতে হবে ইউনিক স্টাইল রেসিপি। তারপর এটি পরিবেশন করা যেতে পারে ভাত-রুটি যেকোনো কিছুর সাথেই।

Related Articles

Back to top button