লাইফ স্টাইল

ভাতের সঙ্গে খাওয়ার জন্য নিরামিষ পনির কষা, রইলো রেসিপি

পনির খেতে ভালোবাসেন না এরকম মানুষ হয়তো হাজারে খুঁজলে একজন পাওয়া যাবে। অনেকেরই দুধে অনীহা থাকে সেই অনীহা কাটাতে যাতে দুধের খাদ্যগুণ শরীরে যায় সেই জন্য ডাক্তারেরা সাপ্লিমেন্ট হিসাবে পরামর্শ দিয়ে থাকেন পনির খাওয়ার কথা কিংবা দুগ্ধজাত দ্রব্য খাওয়ার কথা। দুঃখের এতদুভয়ের মধ্যে পনির দই টফু উল্লেখযোগ্য। পনিরের ভিন্নরকম শাদে বাঙালি খাদ্য প্রিয় মন মশগুল হয়ে থাকে। কখনো পনির মাখানি আবার কখনো পনির বাটার মশলা একের পর এক রেসিপি মানুষ বেশ কয়েকবার হলেও থেকে দেখেছেন। পনির এমন একটা খাদ্য যেখানে সম্পূর্ণ নিরামিষ দিনেও এই খাবার খাওয়া হয়ে থাকে। এবার দেখে নেয়া যাক পনির কষা বানানোর রেসিপি। সবার প্রথমে রইল পনির কষা করতে কি কি উপকরণ এর দরকার।

উপকরণ:
৫০০-৬০০ গ্রাম পনির
৩ টেবিল চামচ ক্যাপসিকাম বাটা
১ টেবিল চামচ আদা বাটা
১ টেবিল চামচ ধনেপাতা বাটা
২ টেবিল চামচ টমেটো বাটা
১ টেবিল চামচ গোলমরিচ গুঁড়ো
১ কাপ সাদা তেল
১ চা চামচ হলুদ গুঁড়ো
১ চা চামচ লঙ্কা গুঁড়ো
গোটা কাঁচা লঙ্কা
স্বাদমতো নুন
স্বাদমত মিষ্টি

এবার দেখে নেয়া যাক কিভাবে রান্না করতে হবে পনির কষা। রন্ধনপ্রণালী:

১. প্রথমেই জেনে রাখা পনির গুলোকে ছোট ছোট স্কয়ার সাইজের টুকরো করে কেটে নিয়ে গরম জলে সামান্য স্বাদমতো নুন দিয়ে ভাপিয়ে নিতে হবে।

২. পনিরের টুকরোগুলোকে ভাপানো হয়ে গেলে কড়াইয়ে তেল গরম করে তার মধ্যে দিয়ে দিতে হবে আদা ক্যাপসিকাম টমেটো বাটা। সব মসলা দিয়ে দেয়ার পর ভালো করে কষিয়ে নিতে হবে। ভালো করে কষানো হয়ে গেলে এবার যোগ করতে হবে স্বাদমতো নুন এবং মিষ্টি।

৩. এর পরেই কষিয়ে রাখা মসলার মধ্যে যোগ করতে হবে হলুদ, কাঁচা লঙ্কা, গোলমরিচ গুঁড়ো এবং ধনেপাতা বাটা। এরপর আগে ভাপিয়ে রাখা পনিরের টুকরোগুলো কে দিয়ে দিতে হবে।

৪. ভালো করে নাড়াচাড়া করে কিছুটা উষ্ণ গরম জল যোগ করে ১০ মিনিটের মত ঢাকনা দিয়ে ঢেকে রাখতে হবে। তারপর ঢাকনা খুলে ভালোমতো নাড়াচাড়া করে নিতে হবে সমস্ত উপকরণ গুলি কে। কিছুক্ষণ নাড়াচাড়া করার পরেই একেবারে তৈরি হয়ে যাবে গরম গরম পনির কথা।

এই পনির কষা গরম ভাতের সাথে পরিবেশন করা যেতে পারে। পেঁয়াজ রসুন ছাড়া একেবারে নিরামিষ আইটেম এটি। যা বলে বলে গোল দেবে যেকোনো আমিষ আইটেমকে।

Related Articles

Back to top button