×
অর্থনীতি

সোনার ভরিতে বড়সড় পতন, রেকর্ড দামের থেকে কমল ৬,৪০০ টাকা

সোনা (Gold) ভারতের বাজারে সর্বাধিক চাহিদাসম্পন্ন ধাতু। রাশিয়া এবং ইউক্রেনের যুদ্ধকালীন পরিস্থিতিতে বিশ্বের অন্যান্য দেশের সাথে সাথে ভারতের অর্থনৈতিক পরিস্থিতিও দোলাচলে পড়েছে। কিন্তু এরকম যুদ্ধকালীন অস্থির পরিস্থিতিতে ভারতের অর্থনীতিতে সোনা এবং রুপোর দামে উঠা-নামা চলছে। তবে ভারতীয় বাজারে দিন দিন যেভাবে সোনার দাম ঊর্ধ্বমুখী তাতে চিন্তিত সাধারণ মধ্যবিত্তরা। তবে আশার আলো একটাই নয়া অর্থবর্ষে ভারতীয় বাজারে সোনার দামে বেশ কিছুটা পতন লক্ষ করা গেছে। বর্তমানে বিশ্ব বাজারের গতিপ্রকৃতির জন্য এক সপ্তাহে ভারতীয় বাজারে কমল সোনা ও রুপোর দাম। আজ অর্থাৎ সোমবার সপ্তাহের প্রথম কর্মদিবসেই এমসিএক্স সূচকে ১০ গ্রাম সোনার দাম কমে দাঁড়িয়েছে ৫১,৩২৫ টাকায়। সপ্তাহের শুরুতে ভারতীয় বাজারে সোনার দাম (Gold Price) এর এই পতনে মধ্যবিত্তদের মুখে হাসি ফুটেছে। এর পাশাপাশি এককেজি সিলভার এর দাম কমে হয়েছে ৬২,৫১৮ টাকা। এখন চলছে বিয়ের মরশুম। আর এখনই বিশেষজ্ঞদের মতে সোনা কেনার মোক্ষম সময়।

বর্তমানে বিশ্ববাজারে সোনার দামে পতন দেখা যাচ্ছে।শক্তিশালী মার্কিন ডলারের জেরে দুর্বল থাকছে সোনা। ২২ এবং ২৪ ক্যারেট ১০ গ্রাম সোনার দামে অনেকটাই পতন ঘটেছে। তবে চলতি সপ্তাহেই আগের তুলনায় কলকাতার বাজারে ২২ ক্যারেট সোনার দাম অনেকটাই কমেছে। সোনা আপাতত বিশ্ববাজারের সর্বনিম্ন স্তরে পৌঁছে গিয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। গ্লোবাল মার্কেটে এক আউন্স স্পট সোনার দাম ০.৬ শতাংশ কমে হয়েছে ১৮৭১.৯৬ ডলার।

চলুন দেখে নেওয়া যাক কলকাতা শহরে আজ অর্থাৎ সপ্তাহের প্রথম কর্মদিবসে বিভিন্ন ধরনের সোনার কি দাম রয়েছে এবং দামের কি পরিবর্তন এসেছে! সপ্তাহের শুরুতেই অর্থাৎ আজ বাজার খোলার সময় ২৪ ক্যারেট দশ গ্রাম পাকা সোনার দাম কমে দাঁড়িয়েছে ৫২,৫০০ টাকায়। আজ ২২ ক্যারেট দশ গ্রাম গয়না সোনার দাম ৪৯,৮০০ টাকা ও ২২ ক্যারেট দশ গ্রাম হলমার্ক সোনার দাম ৫০,৫৫০ টাকা।অন্যদিকে কলকাতার বাজারে আজ রুপোর দাম (Silver prices) ও ৬৫০০০ টাকার নিচে। এক কেজি রুপোর বাট এর দাম ৬২,৮০০ টাকা। এরই পাশাপাশি এক কেজি খুচরো রুপোর দাম ও আজ দাঁড়িয়েছে ৬২,৯০০ টাকায়। সুতরাং বাজারে সোনার দাম এর এই পতন স্বাভাবিকভাবেই মধ্যবিত্তদের মুখে হাসি ফুটিয়েছে। এমনিতেই এই ভরা বিয়ের মরশুমে বাঙ্গালীদের মধ্যে সোনা কেনার হিড়িক বেড়ে যায়। বর্তমানে সোনার সাথে সাথেই ট্রেন্ডি রুপোর জুয়েলারি পরার চল হয়েছে। সুতরাং স্বাভাবিকভাবেই বিয়ের মরসুমে এভাবে সোনা এবং রুপোর দাম এর কিছুটা পতনে সাধারন মানুষের মধ্যে কিছুটা হলেও স্বস্তি ফিরে এসেছে। তবে বিশেষজ্ঞদের মতে রাশিয়া ও ইউক্রেনের যুদ্ধ থেমে গেলেও বিশ্বজুড়ে বাড়তে থাকা মূল্যবৃদ্ধির কারণে সোনার দাম ৫০ হাজার টাকার নিচে নামবে না বলে মনে করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, ২০২০ সালে করোনার প্রথম ঢেউয়ে লকডাউন এর সময় সোনার দাম ঊর্ধ্বমুখী হতে হতে আগস্ট এর দ্বিতীয় সপ্তাহে পৌঁছে গিয়েছিল ৫৬,২০০ টাকায়। যা এখনো অবধি রেকর্ড দর হিসাবে বিবেচিত হয়ে আসছে। আজ সোমবার সপ্তাহের প্রথম কর্মদিবসে সোনার দাম রেকর্ড দরের থেকে ৬৪০০ টাকা কমে গিয়ে হয়েছে ৪৯,৮০০ টাকা।

Related Articles