বিনোদন

হাইকোর্টের রায়ে মিললো সম্মতি! তৈরি হবে সুশান্ত সিং রাজপুতের ‘বায়োপিক’, উচ্ছ্বসিত অনুরাগীরা

গত বছর ১৪ই জুন হঠাৎ করেই আত্মহত্যা করেন বলিউডের অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুত। নিজের বাড়িতেই গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেন অভিনেতা। সকালবেলা পুলিশ গিয়ে তাকে উদ্ধার করার আগেই সবটা শেষ হয়ে যায়। তবে তার মৃত্যু নিয়ে সেইসময় চলেছিল অনেক জল্পনা। কেউ বলেছিলেন বলিউডের নেপোটিজম এর জন্য দায়ী আবার কেউ কেউ তার প্রেমিকাকে দায়ী করেছিলেন এর জন্য। সেইসময় সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুকে ঘিরে তোলপাড় হয়ে গেছিল নেট দুনিয়া।

ময়নাতদন্ত করা হয় সুশান্ত সিং রাজপুতের দেহকে। ৮০% শরীরে অংশ নিয়ে বানানো হয় ভিসেরা রিপোর্ট। প্রথমে সিবিআই তদন্ত চালালেও পরে তদন্তের দায়িত্ব পান ইডি এনসিবি। উঠে আসে বলিউডের অনেক তাবড় তাবড় অভিনেতা অভিনেত্রীদের নাম। যোগ পাওয়া যায় মাদক চক্রের।

তবে সুশান্ত সিং এর মৃত্যু নিয়ে আজও রয়ে গেছে ধোঁয়াশা। যাদের দিকে অভিযোগের আঙুল উঠেছিল তারা সবাই নিজেদের জীবনের স্বাভাবিক ছন্দে ফিরেছেন। তাহলে সুশান্তের মৃত্যুর আসল কারণ কী? এই প্রশ্ন আজও ঘুরছে সুশান্তের অনুগামীদের মনে। এর আগেও সুশান্ত সিং এর জীবনী নিয়ে ছবি বানানোর কথা বলা হয়েছিল। কিন্তু সেইসময় সুশান্তের বাবা কে.কে সিং নিজের ছেলের ব্যক্তিগত জীবনকে সকলের সামনে আনতে চাননি। তাই তিনি দিল্লী হাইকোর্টে সুশান্তের বায়োপিক বানানোর জন্য নিষেধাজ্ঞা জারি করার আবেদন জানান। তবে হাইকোর্টের বিচারপতি সঞ্জীব নারুলা তার এই আবেদন খারিজ করেন।

সুশান্তের মৃত্যুর পর ‘ন্যায়: দি জাস্টিস’, ‘সুইসাইড অর মার্ডার: আ স্টার ওয়াজ লস্ট’, ‘শশাঙ্ক’ নামে তার বায়োপিক বানানোর কথা ভাবা হয়েছিল। কিন্তু তার পরিবার থেকে নোটিস পাঠানোর জন্য কার্যত বন্ধ হয়ে গেছিল ছবি তৈরির কাজ। পরিবারের গোপনীয়তা রক্ষা করার জন্য এরকম সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন তারা এছাড়াও বলা হয় উত্তরসূরীদের অনুমতি ছাড়া কোনো ফিল্ম বানানো যাবে না। কিন্তু দিল্লী হাইকোর্ট এই যুক্তি মানেননি। এতে বেশ খুশী হয়েছেন পরিচালক ও প্রযোজক পক্ষের আইনজীবী এ.পি সিংহ। তিনি বলেছেন ‘এই জয় সেই সমস্ত পরিচালক ও প্রযোজকদের যারা এই সমাজকে নতুন দিশা দেখাতে চান’। অবশ্য এতে বেশ খুশী হয়েছেন সুশান্ত ভক্তরা।

Back to top button