বিনোদন

Mithai: দেবী কমলে কামিনী সেজে ভুলভাল নেচে ট্রোলড মিঠাই, যোগ্য জবাব দিলেন সৌমিতৃষা

আজ মহালয়া। সূচনা দেবীপক্ষের। দেবীপক্ষের সূচনালগ্নেই বাঙালির ঘরে ঘরে বেজে ওঠে ‘আশ্বিনের শারদ প্রাতে’। তারপরেই বাঙালি বসে পড়ে বোকা বাক্সের সামনে। তবে রেডিওয় বীরেন্দ্রকৃষ্ণ ভদ্রের কন্ঠে মহালয়া অতি যুগ যুগ ধরে চলে আসছে। শুধু রেডিও না, রেডিওর সঙ্গে পাল্লা দেয় টিভি চ্যানেলগুলোও। আগে দূরদর্শনে সম্প্রচারিত হত মহালায়া তবে বর্তমানে প্রথমসারির চ্যানেলগুলোর দেখানোর জন্য একেবারে লড়াইয়ে মত্ত হয়।

দেবীপক্ষের সূচনালগ্নে প্রত্যেকবারই চ্যানেলগুলির মধ্যে লক্ষ্য করা যায় একটা প্রতিদ্বন্দ্বীতা। প্রথমেই কে কোন চ্যানেলের হয়ে মা দুর্গা রূপে ধরা দেবেন মহালয়ার পুণ্য তিথিতে সেই নিয়ে চলে যুদ্ধ। প্রত্যেক বছরেই চ্যানেল জি বাংলার (Zee Bangla) পক্ষ থেকে থাকে নতুন কিছু উপস্থাপনা। প্রত্যেক বছর ধারাবাহিকতা বজায় রেখে এই বছরের চমক ছিল ‘নানারূপে মহামায়া’। যেখানে আদ্যা শক্তির মহিমায় অভিনয় করেছেন অভিনেত্রী শুভশ্রী গাঙ্গুলী (Subhasree Ganguly)। সর্বশেষে শুভশ্রীর হাতেই হয়েছে মহিষাসুর বধ।

দেবীর নানা রূপে দেখা গিয়েছে টেলিভিশন খ্যাত নানা অভিনেত্রীকে। দেবী কমলে কামিনী রূপে ধরা দিয়েছিলেন সকলের প্রিয় মিঠাই অর্থাৎ সৌমিতৃষা কুণ্ডু (Soumitrisha Kundoo)। তবে তাতেই ঘটে বিপত্তি। কিছুদিন আগেই মিঠাইয়ের এইরূপ সামনে এসেছিল। তবে সম্প্রতি প্রকাশ করা হয়েছিল একটি মহড়ার ভিডিও। যেটি সামনে আসতেই অভিনেত্রীকে হতে হয় কুমন্তব্য-এর শিকার। কেউ কেউ অভিনেত্রীকে কটাক্ষ করে লেখেন, ‘স্টেপ ভুলে গিয়েছিলে?’ আবার কারোর কারোর কথায়, ‘মাঝখান দিয়ে মনে হচ্ছিল পড়ে যাচ্ছিল কিন্তু সামলে নিয়েছে।’ এছাড়াও চোখে পড়েছে, ‘এইসব অভিনেত্রী এবং পরিচালকদের জন্যই মহালয়া টা একেবারে মাটি হয়ে যায়… মাথায় কিছু নেই আবার এদিকে চলে আসে মহালায়া করতে।’

Mithai: দেবী কমলে কামিনী সেজে ভুলভাল নেচে ট্রোলড মিঠাই, যোগ্য জবাব দিলেন সৌমিতৃষা

যেহেতু ভিডিওটা ছিল মহড়া দেয়ার ভিডিও তাই স্বাভাবিকভাবেই সেই নাচের মধ্যে ছিল না কোন পরিপূর্ণতা। আর তাতেই চটেছেন নেটিজেনরা। তবে সেটা যে মহড়া দেয়ার ভিডিও সেটি অভিনেত্রী সৌমিতৃষা কুন্ডু নিজেই পরিষ্কার করেছেন মন্তব্য বক্সে। অভিনেত্রী লিখেছেন, ‘রিহার্সালের ভিডিও পোস্ট করে দিলে?’

Related Articles

Back to top button