বিনোদন

বিয়ের প্রস্তাব দেওয়ার পর মিঠাইকে এবার বুকে জড়িয়ে ধরল সিদ্ধার্থ, তুমুল ভাইরাল ভিডিও

গোপাল একের পর এক হেলেপ চলেছে মিঠাইকে। কখনো সিদ্ধার্থের সাথে নতুন করে গাঁটছড়া বাঁধা আবার কখনো সিদ্ধার্থের সাথে পালানো সবকিছুই একের পর এক অষ্টম আশ্চর্য এর মত ঘটিয়ে চলেছে মিঠাইয়ের জীবনে। ওদিকে উচ্ছেবাবুর উপরে বেশ কিছুদিন ধরে একটু রেগে গেছেন বাঙালি। আসলে সে নিজের মনের কথা নিজেই বুঝতে চাইছে না এবং কিছুতেই মেনে নিতে পারছে না যে সেই ইতিমধ্যেই মিঠাইকে ভালবেসে ফেলেছে। মিঠাই-এর মা তাঁকে জনাইতে নিয়ে চলে গেলে সিদ্ধার্থ ভালো করেই বুঝতে পারে সে মিঠাই ছাড়া এক মুহূর্ত থাকতে পারছে না।

বিয়ে নামক সামাজিক প্রতিষ্ঠানের উপর কিছুতেই বিশ্বাস করতে পারেনা সিদ্ধার্থ। হ্যাটট্রিক বিয়ের অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হতে গিয়েও ভেস্তে গিয়েছে। সিঙ্গাপুরে যাওয়ার আগে দাদুর নাতি ডিভোর্স পেপারে সই করে দিয়ে গিয়েছিল এই ঘটনা পরিবারের সবার কানে উঠতেই সবাই ভেঙে পড়ে। সেই ঘটনা পরিবারের সদস্যের সঙ্গে সঙ্গে কানে উঠেছে মিঠাইয়ের মায়েরও। তাই একপ্রকার জোরাজুরি করেই মিঠাইকে জনাইতে নিয়ে চলে গিয়েছিলেন তিনি। তবে এখানেও রয়েছে গল্পে টুইস্ট।

দাদুর গর্বের নাতি তাঁর নাথ বউয়ের উপর যে অন্যায় করেছে সেটা কিছুতেই মেনে নিতে পারেননি দাদাই। সেই দুঃখে সংসার ত্যাগী হয়েছেন তিনি। দাদুকে আবারো সংসারের ফেরাতে মিঠাই-এর শরণাপন্ন হতে হয়েছে সিদ্ধার্থকে। আপাতভাবে মিঠাই-এর মায়ের চোখে ধুলো দিয়ে নিজের বরকে নিয়ে পালিয়ে সোজা আশ্রমে গিয়ে হাজির হয়েছে মিঠাই এবং সিদ্ধার্থ। তবে পালানোর সময় মিঠাই তার মায়ের সতর্কতাঃ সম্বন্ধে টের পায়নি। মিঠাই টের না পেলেও মিঠাইয়ের মা সেই সময় জেগেছিলেন এবং তিনি মনেপ্রাণে এটাই চেয়েছিলে। সম্প্রতি সামনে আসা নতুন প্রোমোতে দেখা গিয়েছে আসামে একদম ফিল্মি কায়দায় হাঁটু গেড়ে মিঠাই-এর সামনে বসে মিঠাই কে সিদ্ধার্থ বলছে, ‘উইল ইউ ম্যারি মি মিঠাই?’

ওদিকে আবার ২৭ তারিখের এপিসোডের একঝলকও সকলের সামনে এসেছে। যে প্রোমো দেখে সিদাই (সিদ্ধার্থ-মিঠাই) ভক্তদের চক্ষু একেবারে চড়কগাছ। সেই প্রোমো অনুযায়ী চোখে পড়েছে আশ্রমের অন্যান্য সাধিকাদের সঙ্গে পুজোর আয়োজন করছে মিঠাই। সেখানে হঠাৎই উপস্থিত হয় সিদ্ধার্থ এবং প্রশ্ন করে বলেন, ‘মিঠাই, দাদাই কোথায়? নেই তো এখানে।’ কথোপকথনের মধ্যেই সিদ্ধার্থের নজরে আসে প্রদীপের শিখায় মিঠাইয়ের শাড়ির এক অংশ গিয়ে পড়েছে। শাড়ির আঁচলে বিন্দু বিন্দু আগুনের শিখা দেখা দিতে শুরু করেছে। এই দৃশ্য দেখেই চমকে ওঠেন সিদ্ধার্থ। সঙ্গে সঙ্গে নিজের বউকে বুকে টেনে নেয় দাদুর নাতি। সেই মুহূর্তে সেখানে হাজির হয় টেস এবং সোমদা।

Related Articles

Back to top button