বিনোদনভাইরাল

মিঠাইয়ের মুখে হাসি ফোটাতে শালা এবং শাশুড়িকে নিয়ে কলকাতা ভ্রমনে সিদ্ধার্থ, রইল ভিডিও

আজ চৌঠা জানুয়ারি। দেখতে দেখতে জি বাংলার (Zee Bangla) জনপ্রিয় ধারাবাহিক মিঠাই (Mithai) পার করল এক বছর। মিঠাইয়ের বর্ষপূর্তি উপলক্ষে ধারাবাহিকের নির্মাতারা আনছেন একের পর এক চমক। প্রথম থেকেই ধারাবাহিকের পরিবারকেন্দ্রিক গল্পের জন্যেই টিআরপির (TRP) তালিকায় একটানা প্রায় এক বছর ধরে শীর্ষে অবস্থান করেছে এই ধারাবাহিক। নিজের সঙ্গে অনেক যুদ্ধ করে অবশেষে মিঠাইকে মন থেকে মেনে নিয়েছে সিদ্ধার্থ। আস্তে আস্তে মন গলছে মিঠাইয়ের ওপর।

মিঠাইয়ের মুখে হাসি ফোটাতে শালা এবং শাশুড়িকে নিয়ে কলকাতা ভ্রমনে সিদ্ধার্থ, রইল ভিডিও

ইতিমধ্যেই সম্প্রচারিত হয়েছে এক বিশেষ পর্ব। যেখানে মিঠাই সিদ্ধার্থের হাত ধরে ক্রিসমাসে তিলোত্তমার আলো দেখিয়েছে। এরপর বড়দিনের উপহারের জন্য মিঠাইকে সারপ্রাইজ দিতে তার সামনে হাজির করেছে মা এবং গুলতিকে। যা দেখে মিঠাই আনন্দে আত্মহারা। এখানেই শেষ নয়, মিঠাইকে সিদ্ধার্থ বলে সে কলকাতা ঘুরে দেখাবে। সঙ্গে থাকবে মা এবং গুলতি। এই কথা মত পরের দিন সকালে মিঠাই, মা এবং গুলতিকে নিয়ে সিদ্ধার্থ বেরোয় কলকাতা ভ্রমণে।

ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালের সামনে ঘোড়ায় সফর থেকে শুরু করে গড়ের মাঠের পাপড়ি চাট, প্রিন্সেপ ঘাটের নৌকা সফর কিছুই বাদ যায়নি এদিন। সিদ্ধার্থ নিজের দায়িত্ব নিয়ে মিঠাই এবং তার মা, ভাইকে সবকিছুই ঘুরিয়ে দেখিয়েছে কলকাতায়। সর্বশেষে রেস্টুরেন্টে সেরে এসেছ ভুঁড়িভোজ। তবে কোন সাহেবী খাবারের রেস্টুরেন্ট নয়, যেহেতু মিঠাই, মিঠাই-এর মা এবং ভাই বাঙালি খাবারে বেশি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করে তাই তাদের নিয়ে গিয়েছিল এক বাঙালি রেস্টুরেন্ট-এই।

এরই মাঝে মিঠাইয়ের ফ্যান পেজের পক্ষ থেকে ভাইরাল হয়েছে এক ভিডিও। যা দেখে রীতিমতো মিঠাই প্রিয় বাঙালির মনে জেগে উঠেছে নানা প্রশ্ন। ভিডিও অনুযায়ী দেখা গিয়েছে, গঙ্গা পারে বিধ্বস্ত অবস্থায় জলে ভিজে দাঁড়িয়ে রয়েছে মিঠাই। তাকে তড়িঘড়ি করে বুকে টেনে নিচ্ছে সিদ্ধার্থ। এই ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর থেকে অনেকেই আন্দাজ করে ফেলেছেন হয়তো তুফানমেলের জীবনে আবারো কোন বিপদ ঘনিয়ে আসছে। যে বিপদের সামনে ঢাল হয়ে দাঁড়াবে সিদ্ধার্থ। তবে এখনই পুরো বিষয়টি পরিস্কার করেনি চ্যানেল কর্তৃপক্ষ। তাই এই ভিডিও এর নেপথ্যে ঠিক কী কারণ রয়েছে তা জানতে বেশ কিছুদিন অপেক্ষা করতে হবে মিঠাই প্রিয় দর্শকদের। তাঁদের অবশ্যই চোখ রাখতে হবে রাত আটটায় জি বাংলার পর্দায়।

Related Articles

Back to top button