বিনোদন

কিছুদিন আগেই মা হয়েছেন, এরমধ্যেই ভক্তদের নতুন সুখবর দিলেন গায়িকা শ্রেয়া ঘোষাল

সংগীত শিল্পী শ্রেয়া ঘোষাল (Shreya Ghoshal) বরাবরই ঈশ্বরে বিশ্বাসী। আর পাঁচটা বাঙ্গালীদের মতই নিজের বাড়িতে পূজা পাঠ করে থাকেন তিনি। পূজা আরতি বন্দনা হিসেবে থাকে গণেশ বন্দনা। সামনেই গণেশ চতুর্থী। এই গণেশ চতুর্থী উপলক্ষেই সংগীত শিল্পী শ্রেয়া ঘোষালের গলায় শোনা গেল গণেশ বন্দনা। গণেশ চতুর্থীর আগেই শ্রেয়া ঘোষালের কাছ থেকে এরকম একটা সুখবর পেয়ে আপ্লুত অনুরাগীরা।

সামাজিক মাধ্যমে এই খুশির খবর নিজেই পোস্ট করলেন সংগীত শিল্পী শ্রেয়া ঘোষাল। একটি ছোট্ট ভিডিও পোস্ট করে তিনি ক্যাপশনে লিখেছেন,‘জয়দেব জয়দেব আরতি সব প্ল্যাটফর্মে মুক্তি পেয়ে গিয়েছে। আমার জীবনে গণেশ আরতির বড় ভূমিকা রয়েছে। বিশেষ করে গণেশ চতুর্থীর সময় এর মাহাত্ম্য অন্যরকম। এই গানটা রেকর্ড করতে পেরে আমার খুব ভাল লাগছে।’ বেশ কিছুদিন আগেই মা হয়েছেন গায়িকা শ্রেয়া ঘোষাল। একরাত্রি ছেলেকে নিয়েই দিনের বেশিরভাগ সময়টা কাটাচ্ছেন গায়িকা।

শ্রেয়া ঘোষাল বরাবরই প্রাইভেট একজন। শিলাদিত্য সাথেই দীর্ঘদিনের সম্পর্কের পর একসাথে গাঁটছড়া বেঁধেছিলেন তিনি। নিজেদের ভালোবাসাকে পূর্ণতা দিয়ে সম্প্রতি তাদের করে এসেছে ফুটফুটে এক পুত্র সন্তান। শুরু হয়েছে জীবনের এক নতুন অধ্যায়। মা হিসাবে নতুন জীবনের দায়িত্ব নিয়েছেন তিনি। তবে পুত্র সন্তানের নামকরণ এর পরই অনুরাগী মহলে নামের উচ্চারণ নিয়ে বেশ দ্বন্দ্ব দেখা যায়। সেই দ্বন্দ্ব এক টুইটের মাধ্যমে পরিষ্কার করেন মা শ্রেয়া ঘোষাল নিজেই। সেই টুইটারে তিনি লিখেছিলেন,’আমার প্রিয় সমস্ত বাঙালি অনুরাগীদের বলছি বাংলায় আমার পুত্রের নামের সঠিক বানান হলো দেবয়ান।’

একরত্তি ছোট ছেলের ছবি শেয়ার করে গায়িকা লিখেছিলেন,‘তুই সব সময় আমার হাতের মধ্যে থাকিস। কিন্তু এখনও তোকে সবটা বুঝতে পারি না। … কী সহজ ভাবে তুই আমার জীবনে এলি আর ভালবাসার সংজ্ঞা নতুন করে শিখলাম। আমার ছোট্ট দেবায়ন। মা তোমাকে ভালবাসে।’ এখনো পর্যন্ত ছেলের যে ক’টি ছবি গায়িকার শেয়ার করেছেন কোথাও কি নিজের সন্তানের মুখ স্পষ্ট করেননি তিনি। খুব সম্ভবত এখনই সামাজিক মাধ্যমে দেওয়ালের ছেলের মুখ দেখাতে নারাজ গায়িকা। যদিও একা শ্রেয়া ঘোষাল নন এর আগেও বহু সেলেব মা এমনই ট্রেন্ড ফলো করে এসেছেন।

Related Articles

Back to top button