বিনোদন

গৌরবকে ছেড়ে সায়ন্তর সঙ্গে নতুন জীবন শুরু! সম্পর্ক নিয়ে অবশেষে মুখ খুললেন শ্রীমা ভট্টাচার্য

অবশেষে অভিনেতা সায়ন্ত মোদকের সাথে প্রেমের গুঞ্জন নিয়ে মুখ খুললেন অভিনেত্রী শ্রীমা ভট্টাচার্য (Shreema Bhattacharya)। বেশ কিছুদিন আগেই অভিনেতা সায়ন্ত মোদকের (Sayanta Modak) সাথে বিচ্ছেদ হয়ে গিয়েছে অভিনেত্রী দেবচন্দ্রিমা সিংহ রায়ের (Debchandrima Singha Roy)। গত চার বছর ধরে মিষ্টি সম্পর্কে আবদ্ধ থাকার পরেও এরকম বিচ্ছেদ অনুরাগী মহলে অনেকেই মেনে নিতে পারেননি। এর মাঝে ছড়িয়ে পড়েছিল অভিনেত্রী শ্রীমা ভট্টাচার্য-এর জন্যই নাকি বিচ্ছেদ হয়েছে অভিনেতা এবং অভিনেত্রীর। এই প্রসঙ্গে অভিনেত্রী শ্রীমা ভট্টাচার্যকে দেখা গেল অকপটে জবাব দিতে।

এক সংবাদমাধ্যম থেকে জিজ্ঞাসা করা হয় অভিনেতা সায়ন্ত মোদকের সাথে প্রেমের গুজব নাম জড়ানো কতটা সত্যি! সেই প্রসঙ্গে অভিনেত্রী শ্রীমা ভট্টাচার্য উত্তর দিতে গিয়ে বলেন, ‘অদ্ভুত লাগে যে ওখানে লেখা থেকে বিশ্বস্ত সূত্র, আমি খুব অবাক হয়ে যাই আমায় জিজ্ঞেস করেনি ফোন করে। কেউ জিজ্ঞেস করে আজকে যদি আমি যখন কোন রিলেশনশিপের ব্যাপারে ওপেন অপ হই, তখন সবাই ফোন করে জানতে চান আমি যখন হ্যাঁ কিংবা না অ্যানসার দিই। একটা কনফার্মেশন হয়। উইদাউৎ মাই পার্মিশন উইদাউট এনি কমিউনিকেশন ওই একটা লাইন লিখে দিলো।’

অভিনেত্রী কথায়, যখন কোন ঘটনাকে মজাদারভাবে উপস্থাপিত করা হয় সে ক্ষেত্রে সেখানে উল্লেখ করা থাকে মজার ছলে কিংবা গসিপ করে। ‘ওখানে কেউ গসিপ বলে পট্রে করেনি এমন করে রেখা রয়েছে যেন ওটা একদম সত্যি কারের।’ অভিনেত্রী নিজেও একজন জার্নালিজমের স্টুডেন্ট তাই তিনি বুঝতে পারেননা উইদাউট এনি কনফার্মেশন একটা নিউজ এভাবে কিভাবে লেখা যায়! অভিনেত্রী এই প্রসঙ্গে বলেছেন, ‘কোথাও যেন ইথিকস অনুসারে একটু হলেও কমিউনিকেশন টা দরকার নয় কি!’

অনেক সময়ই আনাচে-কানাচে দেখা যায় অভিনেত্রী কোন ব্রাইডাল সুট করলেই তাকে অভিনেত্রী বিয়ে করে ফেলেছেন বলে প্রচার করা হয়। সেক্ষেত্রেও অভিনেত্রী আপত্তি জানিয়েছেন। অভিনেত্রী বারবার করে বলেছেন যেখানে মেনশন করা থাকছে হেয়ার ড্রেসারের নাম স্টাইলারের নাম মেক-আপ আর্টিস্টের নাম। সেখানে কিভাবে মানুষ একটা ব্রাইডাল শ্যুটকে বিয়ে বলে চালাতে পারে সত্যিই তাঁর কোনো ধারণা নেই! এই প্রসঙ্গে কথা বলতে বলতে অভিনেত্রী আরো বলেছেন, ‘আমি বিয়ে করতে গেলে সবাইকে জানিয়েই করবো, একেবারে রানীর মত প্রপার ওয়েতে বিয়ে করব’।

Related Articles

Back to top button