বিনোদন

বেজে গেল বিয়ের সানাই, সাতপাকে বাঁধা পড়ছেন অভিনেত্রী ঋতাভরী চক্রবর্তী

বেশ কিছুদিন আগেই অভিনেত্রী ঋতাভরী চক্রবর্তীর (Ritabhari Chakraborty) বিয়ের খবরে বেশ কিছুটা উত্তেজিত হয়ে পড়েছিল সামাজিক মাধ্যম। নিমেষের মধ্যে পলক পড়তে না পড়তেই অভিনেত্রী ঋতাভরী চক্রবর্তী বিয়ের খবর রটেছিল নেট পাড়ায়। যেখানে বলা হয়েছিল এই ডিসেম্বর এই অভিনেত্রীর এঙ্গেজমেন্ট এবং পরের বছরেই বাঁধা পড়বেন সাতপাকে। তবে অবশ্যই সামাজিক মাধ্যমে একটা স্টেটমেন্ট দিয়ে অভিনেত্রী ঋতাভরী-চক্রবর্তী বলেছিলেন, আপাতত দুটো সার্জারির পর তিনি এখন সেরে ওঠার চেষ্টা করছেন। এই অবস্থায় কোন মিডিয়া কোম্পানি যেন তার বিয়ের ভুয়ো খবর নিয়ে স্টরি না বানায়। কিংবা ভুয়ো খবরের উপর ভিত্তি করে তাঁকে যেন কোনোভাবেই কল না করে।

বেজে গেল বিয়ের সানাই, সাতপাকে বাঁধা পড়ছেন অভিনেত্রী ঋতাভরী চক্রবর্তী

অবশেষে এবারে সুখবর দিলেন নিজের মুখেই। এক সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে অভিনেত্রী জানিয়েছেন, অভিনেত্রীর বিয়ে নিয়ে নানারকম সমালোচনা বন্ধ করতেই তিনি সামাজিক মাধ্যমে পোস্ট করেছিলেন তিনি বিয়ে করছেন না। তবে ছড়িয়ে পড়া সেই খবরটা ঠিকই ছিল। ডিসেম্বরেই এঙ্গেজমেন্ট অভিনেত্রীর। অভিনেত্রী ঋতাভরী চক্রবর্তীর হবু বর পেশায় একজন ডাক্তার, তিনি নিজের মুখেই স্বীকার করে নিয়েছেন সেটি।

বেজে গেল বিয়ের সানাই, সাতপাকে বাঁধা পড়ছেন অভিনেত্রী ঋতাভরী চক্রবর্তী

নিজের ডাক্তার জীবনসঙ্গী তথাগত চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গেই একেবারেই ঘরোয়াভাবে এঙ্গেজমেন্ট সারবেন ডিসেম্বরে। তারপরে দুজনে একসাথে অভিনেত্রী ঋতাভরী চক্রবর্তীর বাড়িতেই লিভিং করবেন এমনটাই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। করোনা পরিস্থিতি কিছুটা সামলে উঠলে আগামী ২০২২ কিংবা ২০২৩ সালে সাত পাকে বাঁধা পড়বেন তারা। জাঁকজমক করেই নিজেদের বিয়ের অনুষ্ঠান করার কথা ভাবছেন অভিনেত্রী। বিয়ের পরে দু’জনেরই প্ল্যান দুই বাড়ির কাছাকাছি একটি জায়গায় ফ্ল্যাট নিয়ে দুজনেই সংসার পাতবেন।

পরপর দুটো সার্জারির পর যখন শারীরিক এবং মানসিকভাবে সম্পূর্ণ ভেঙে পড়েছিলেন তখন একমাত্র পাশে ছিলেন তার ডাক্তার বন্ধু তথাগতই। সেই অবস্থায় অভিনেত্রী ঋতাভরী চক্রবর্তী তথাগতর সাথে মিশে এমনটাই মনে করেছিলেন যে, তিনি এমন একটা মানুষ যার ওপর তিনি সম্পূর্ণ নির্ভর করতে পারেন। তবে সেই সময় অসুস্থ থাকায় কফি কিংবা মুভি ডেট কোনটাই হয়ে ওঠেনি তার। অভিনেত্রী ঋতাভরী চক্রবর্তীর সাথে দেখা করতে বাড়িতেই চলে আসতেন ডাক্তার তথাগত। এইভাবে ধীরে ধীরে সম্পর্কের ভিত একেবারে মজবুত হয়ে উঠেছে।

Related Articles

Back to top button