বিনোদনভাইরাল

নেটিজেনদের বুড়ো আঙুল দেখিয়ে কিশোর কুমারের গান গেয়ে ফের ভাইরাল রানু মন্ডল, রইলো ভিডিও

রাতারাতি সামাজিক মাধ্যমে জনপ্রিয়তার দরুন একেবারে বলিউড যাত্রা সুযোগ হয়েছিল স্টেশনের রানু মন্ডল-এর। কিন্তু বেশিদিন সেই সৌভাগ্য টেকেনি তাঁর। বর্তমানে তিনি রানাঘাটের বাড়িতেই সময় কাটাচ্ছেন। সেখানেই একেবারে নিজের মতন করে দিন কাটান রানু। কেউ তাঁর সঙ্গে কথা বলতে গেলে কিংবা তাঁর গান শুনতে গেলে বর্তমানে তাদের সঙ্গে ভালো ব্যবহার করতে দেখা যায় রানু মন্ডলকে। জনপ্রিয়তা পাওয়ার পর থেকেই রানু মন্ডলের একের পর এক কার্যকলাপ কিংবা একের পর এক গান সামাজিক মাধ্যমে জনপ্রিয়তার শীর্ষে আসে।

সম্প্রতি রানু মন্ডল-এর গলায় কিশোর কুমারের গাওয়া গান ‘রাহি নায়ে নায়ে রাস্তা’ গেয়ে সামাজিক মাধ্যমে আবারো সাড়া ফেলে দিলেন। রানু মন্ডলের এই ভিডিওটি অনুরাগীদের উদ্দেশ্যে শেয়ার করা হয়েছে টিনেজার্স নামক একটি ইনস্টাগ্রাম পেজ থেকে। এই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে রানু মন্ডলের পর্বে রয়েছে সাধারণ একটি নাইটি। সেই নাইটিতেই স্বচ্ছন্দভাবে গান গেয়ে চলেছেন তিনি। ভিডিওটি পোস্ট করে ক্যাপশনে যোগ করা হয়েছে, ‘রানু মন্ডলকে আপনি ঘৃণা করলেও তার কন্ঠকে কিছুতেই ঘৃণা করতে পারবেন না।’

রাতারাতি রানাঘাট স্টেশন থেকে ভিখারিনীর বেশ ছেড়ে পাড়ি দিয়েছিলেন মুম্বাইয়ে। কিন্তু তাঁর অসংলগ্ন কথাবার্তা এবং অদ্ভুত ব্যবহার আবারও তাঁকে জনপ্রিয়তার শীর্ষে থেকে শূন্য লেভেল অব্দি নামিয়ে আনতে সাহায্য করে। হঠাৎই এক ব্যক্তি রানু মন্ডলের গাওয়া লতা মঙ্গেশকরের জনপ্রিয় একটি গান ‘এক পেয়ার কা নাগমা হে’ রেকর্ড করেন। তারপর সেই ব্যক্তি অতীন্দ্র চক্রবর্তী পোস্ট করেন সামাজিক মাধ্যমে। চোখের পলক পড়তে না পড়তেই জনপ্রিয়তা পায় সেই গানটি। এই গানের হাত ধরেই রানু মন্ডলের কপাল খোলে। ডাক পান বলিউডে গান করার জন্য। এমনকি হিমেশ রেশমিয়ার তত্ত্বাবধানেও গান করে এসেছেন তিনি।

তবে রানু মন্ডলের অত্যাধিক অহংকারই তারপর কারণ হয়ে দাঁড়ায়। হঠাৎই রাতারাতি জনপ্রিয়তা বেড়ে যাওয়ার পরেই রানু মন্ডলের ভাব ভঙ্গি একেবারে পাল্টে। এমনকি অচিন্ত চক্রবর্তীকেও তিনি শুরু করেন অপমান করতে। হঠাৎই জনপ্রিয়তা পাওয়ার পরে আবার হঠাৎই তিনি লোকচক্ষুর আড়ালে চলে যান। রানাঘাটের বাড়িতে বর্তমানে কোন ইউটিউবার তার সঙ্গে দেখা করতে গেলে যত্ন করে কিছু গানের দু-এক লাইন শুনিয়ে দেন তিনি, যা নিমেষেই ভাইরাল হয় নেট মাধ্যমে।

Related Articles

Back to top button