বিনোদন

পরিবারে এলো নতুন সদস্য, তৃতীয় সন্তানের পিতা হলেন জনপ্রিয় ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান

 কভারে ব্যবহৃত ছবিটি প্রতিকী হিসেবে ব্যবহৃত করা হয়েছে। সাকিব আল হাসানের তৃতীয় সন্তানের কোনো ছবি এখনও পর্যন্ত প্রকাশ্যে আসেনি।

 

সাকিব আল হাসান বাংলাদেশের একজন বিখ্যাত ক্রিকেটার। ২০০৬ সালে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিনি প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেন। সেখান থেকেই তার ক্রিকেটার হিসেবে মাত্রা শুরু। তিনি ছিলেন বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রাক্তন ছাত্র। ২০১৯ সালের ২৮শে অক্টোবর পর্যন্ত তিনি বাংলাদেশের জাতীয় দলের হয়ে টেস্টে এবং টি২০ তে অধিনায়কত্ব করেন। তিনি মিডল‌ অর্ডার বামহাতি ব্যাটসম্যান এবং বামহাতি অর্থোডক্স স্পিনার। তিনি বিশ্বের অন্যতম সেরা স্পিনার। ১০ বছর ধরে তিনি শীর্ষ অলরাউন্ডার রেকর্ডের জায়গা ধরে রেখেছেন। তিনি একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচ ও টেস্ট ক্রিকেটে নিজেকে সেরা প্রমাণ করেছেন।

 

দু’বছর আগে একটি ম্যাচে এক বইকারের সাথে কথা বলেছিলেন সাকিব। যা আইসিসির দুর্নীতি দমন ও সুরক্ষা ইউনিট। তবে এই ঘটনা বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের তরফে থেকে জানানো হয়নি‌। পরবর্তীতে ফোন ওয়্যারটাইপিং রেকর্ড সাকিবকে দোষী সাব্যস্ত করার কথা জানায়। কিছুদিন আগে তা স্বীকারও করে নেন এই বামহাতি ব্যাটসম্যান। তিনি জানান যে বুকমেকারের যোগাযোগ তথ‌্য তিনি গোপন করেছিলেন। তারপরে ভারতীয় বইকারকে যোগাযোগ করতে না পারার কারনে সাকিবকে আইসিসির দুর্নীতি দমন ইউনিট দুই বছরের জন্য সাসপেন্ড করেন। তবে ২০২০ সালের ২৯ শে অক্টোবর তার সাসপেনশন শেষ হয়। এবছর আইপিএলে কোলকাতার জার্সিতে আবার বাইশ গজে খেলতে দেখা যাবে তাকে।

 

সাংসারিক জীবনে বেশ সুখী সাকিব আল হাসান। তিনি ও তার স্ত্রী বিদেশে আছেন। ২০১৫ সালে এই ক্রিকেটারের ঘরে প্রথম কন্যা সন্তান আসে। ২০২০ সালে তার ঘরে এসেছে দ্বিতীয় কন্যা সন্তান। এই দুই মেয়েকে নিয়ে হাসি মজাতেই দিন কাটছিল সাকিবের। তার দ্বিতীয় কন্যা সন্তানের নাম জান্নাত। তবে নতুন বছর আসতেই তার ঘরে এল আরেক সুখবর। তৃতীয়বারের জন্য বাবা হতে চলেছেন তিনি। নতুন বছরের প্রথম দিন স্ত্রীর বেবি বাম্পে চুমু খাওয়ার ছবি নিজের ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করেন তিনি। যা নিমেষেই ভাইরাল হয়ে যায়।

 

গত সোমবার সাকিবের ঘর আলো করে আসে এক পুত্র সন্তান। এখন তিনি এবং তার তিন সন্তান রয়েছেন উইসকনসিনের মেডিসন শহরে। এই সুখবর তিনি ফেসবুকে নিজেই নিজের অনুগামীদের সঙ্গে শেয়ার করে নেন। তিনি লেখেন যে আল্লাহর দোয়ায় ১৫ মার্চে তাদের ঘরে ফুটফুটে পুত্র সন্তান আসে। তার মেয়েরা তাদের ভাইকে পেয়ে খুব খুশি হয়েছে। তার স্ত্রী ও সন্তান দু’জনেই ভালো আছেন। তিনি তার অনুগামীদের ধন্যবাদ এবং ভালোবাসা জানান। তিনি এও বলেন আগামীদিনেও সে নিজের অনুগামীদের পাশে চান। এরপর অনুগামীরা তাকে শুভেচ্ছা জানায় এবং খুব দ্রুত এই পোস্ট ছড়িয়ে পড়ে।

 

Related Articles

Back to top button