বিনোদন

মিঠাইয়ের প্রেমে হাবুডুবু খাচ্ছেন সিদ্ধার্থ, সকলের সামনে মিঠাইকে বিয়ের প্রস্তাব দিল উচ্ছেবাবু

মিঠাই ধারাবাহিকটি গুটিগুটি পায়ে যত সামনের দিকে এগিয়ে চলেছে ততই দর্শকের আরো ভালোবাসা অর্জন করছে। ধারাবাহিক নির্মাতারা একের পর এক টুইস্ট-এ সমৃদ্ধ করে তুলছে এই ধারাবাহিক। বিগত ২৭ সপ্তাহের বেশি সময় ধরে টিআরপি লিস্টে নিজের স্থান প্রথমে রেখেছে এই ধারাবাহিক। কিছুদিন আগেই প্রজাপতয়ে নমঃ পর্বে দর্শকরা ভেবেছিলেন আবারো মালা বদল হবে মিঠাই এবং সিদ্ধার্থের। কিন্তু দশকের সেই আশা-আকাঙ্ক্ষা ভেঙে দিয়ে মিঠাইকে জনাইয়ের নিয়ে ফিরে গিয়েছিলেন তার মা।

প্রায় প্রতি সপ্তাহেই একের পর এক নতুন চমক নিয়ে দর্শকের সামনে হাজির হচ্ছে এই ধারাবাহিক। মিঠাই এর মা সব জানতে পেরে তাকে জনাইতে নিয়ে চলে গেলেও এর মধ্যেও ছিল টুইস্ট। দাদুর আশ্রমে চলে যাওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে আবারও মিঠাই এবং সিদ্ধার্থকে কাছাকাছি এনে দিয়েছে ধারাবাহিকের কাহিনী। দাদুর সন্ন্যাস নেওয়ার সিদ্ধান্তে কষ্টে দিন কাটছে মোদক পরিবার। বিশেষ করে দাদুর নাতির কষ্ট চোখে দেখা যাচ্ছে না।

দাদু দৃঢ়ভাবে জানিয়ে দিয়েছেন তিনি আর কারোর কথাতেই বাড়ি ফিরবেন না। দাদুকে ফিরিয়ে আনতে আশ্রমে এসে হাজির হয়েছেন মিঠাই সিদ্ধার্থ সহ গোটা পরিবারের সদস্যরা। দাদু বাড়ি ফেরানোর জন্য একের পর এক পরিকল্পনা আঁটছে সবাই। তবে কিছুতেই কাজ হচ্ছেনা। রাধা পূর্ণিমার শুভ তিথিতে এই দাদু সংসারের মায়া ত্যাগ করে সন্ন্যাসী হবেন বলে জানিয়ে দিয়েছেন সকলের। দাদুর এমন সিদ্ধান্তে মাথায় আকাশ ভেঙে পড়েছে পরিবারের সদস্যদের।

এত জটিল পরিস্থিতির মাঝেও দাদুর জন্য বিয়েতে অবিশ্বাসী সিদ্ধার্থ নিজের বিশ্বাস বদলে দিতেও রাজি। শেষমেষ মিঠাইকে হাঁটু গেড়ে বসে বিয়ের প্রস্তাব দেওয়ার মতো সিদ্ধান্ত নিয়েছে সে। অবিশ্বাস্য হলেও চ্যানেলের তরফ থেকে মুক্তি পাওয়া নতুন প্রোমো এমনটাই ধরা পড়েছে দর্শকের সামনে। আসামের সবার সামনেই তুফানমেল কে তার প্রিয় উচ্ছে বাবু বলে বসেন, ‘উইল ইউ ম্যারি মি মিঠাই?’ যা দেখে মিঠাই প্রিয় দর্শকদের চক্ষু চড়কগাছ।

দাদু বাড়ি ফিরলেই কি তবে এবার ধুমধাম করে আবারো আয়োজন করবে বিয়ের অনুষ্ঠানের? গোপাল কি মিঠাই এবং সিদ্ধার্থকে নতুন করে সাজিয়ে দেবে তাদের জীবনের নতুন অধ্যায়? নাকি এর পরে তাদের জীবনে আসবে নতুন কোনো বড় ঝড়?

Related Articles

Back to top button