বিনোদন

সুখে সংসার করা হলনা, তৃতীয় ব্যক্তির প্রবেশে ঘর ভাঙলো রুকমার! মন খারাপ অনুরাগীদের

অভিনেত্রী রুকমা রায়ের পোড়া কপাল! বারংবার তৃতীয় ব্যক্তির আগমনে সংসার ভাঙ্গে তার! হ্যাঁ ঠিক এমনটাই আবিষ্কার করেছেন অভিনেত্রী রুকমা রায়ের অনুরাগীরা। যেখানে দেখা যাচ্ছে তার অনুরাগীরা তুলে ধরেছেন তার একাধিক ধারাবাহিক এর ছবি। সেখানে উল্লেখ করেছেন অভিনেত্রী কবে কাকে কোথায় ভালোবেসেছিলেন সবকিছুই। পাশে জ্বলজ্বল করছে অভিনেত্রীর পর্দার প্রেমে কাঁটা হয়ে দাঁড়ানো তৃতীয় ব্যক্তিরাও। এই নিয়েই তারা বানিয়ে ফেলেছেন একটি আস্ত মিম।

সেই মিম গুলিকে লক্ষ্য করলেই প্রথমেই দেখা যাচ্ছে অভিনেত্রীর প্রথম অভিনীত ধারাবাহিক কিরনমালার কথা। যেখানে রাজকন্যা কিরণ ওরফে রুকমা রায় (Rooqma Roy) প্রথমে ভালোবেসে ছিলেন রাজপুত্র পৃথ্বীরাজ কে। সেখানে রাজকন্যার পথের কাঁটা হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন অভিনেত্রী মধুবনী ঘোষ। তারপরেই রয়েছে অভিনেত্রী রুকমা রায় অভিনীত কুন্দ ফুলের মালা। যেখানে অনস্ক্রিন অভিনেত্রীর প্রেমে কাটা হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন শকুন্তলা। এরপরেও বহু ধারাবাহিকে অভিনয় করেছেন অভিনেত্রী। তবে বর্তমানে সবচেয়ে চর্চিত ধারাবাহিক হলো স্টার জলসার (Star Jalsha) দেশের মাটি (DESHER MATI)। যেখানে অভিনেত্রীকে দেখা যাচ্ছে মাম্পির চরিত্রে। নামটি বিপরীতে অভিনয় করছেন রাজা চরিত্রটি, যে চরিত্রে রয়েছেন অভিনেতা রাহুল অরুণোদয় বন্দ্যোপাধ্যায় (Rahul Bandopadhyay)। সেই ধারাবাহিকে ও মাম্পির পর্দার তুতো বোন ‘নীলপাখি’ ওরফে স্বৈরিতি বন্দ্যোপাধ্যায় বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছেন। প্রত্যেকটি ছবিতে চোখ রাখলে দেখা যাচ্ছে,‘কপাল পোড়া রুকমা দিদিইইই! রুকমাদি যা চায়, তাতেই অন্যের নজর লেগে যায়।’ এরপর এই অভিনেত্রী রুকমা রায়ের চোখে জল,‘একটা ধারাবাহিকেও কি শান্তিতে সংসার করতে পারব না আমি?’

সুখে সংসার করা হলনা, তৃতীয় ব্যক্তির প্রবেশে ঘর ভাঙলো রুকমার! মন খারাপ অনুরাগীদের

মিম স্রষ্টাদের অদ্ভুত এই আবিষ্কারে এবং রসিকতায় রীতিমত হকচকিয়ে গেছেন অভিনেত্রীর অনুরাগীরা, কেউ কেউ প্রশ্ন তুলে বলেছেন, ‘রুকমাদির সঙ্গেই এটা কেন হয়’? আবার কারোর মতে, ‘তিনি হয়তো এক সময় অন্যদের জ্বালিয়েছেন। তাই নিজেও এ ভাবে জ্বলছেন!’ অভিনেত্রী রুকমা যদিও এর আগে জানিয়েছেন, ‘দেশের মাটি’-সহ কোনও ধারাবাহিকেই তাঁকে ছোট করা হয়নি। পরিবারে সাধারণত যা যা দেখা যায়, ঠিক তাই-ই তুলে ধরার চেষ্টা করা হয় ছোট পর্দায়।’ তবে মোক্ষম জবাব দিতে ছাড়েননি এক নেটাগরিক। তাঁর দাবি, ‘রুকমা নিজে ‘খড়কুটো’ ধারাবাহিকে সৌজন্য-গুনগুনের মধ্যে ‘তৃতীয় ব্যক্তি’ মাম্পি হিসেবে অনেক বার ঢুকে পড়েছেন। তার বেলা?’

Related Articles

Back to top button