বিনোদনভাইরাল

মাতৃহারা মিঠাইকে ভালোবাসা দিয়ে আগলে রেখেছে উচ্ছেবাবু, সিডের মত বর চাইছে নেটিজেনরা

হঠাৎই মিঠাই ধারাবাহিকের মোড় ঘুরিয়ে মিঠাইয়ের মা সকলকে ছেড়ে পাড়ি দিয়েছেন অজানার উদ্দেশ্যে। স্বাভাবিকভাবেই আচমকা মায়ের মৃত্যু কিছুতেই মেনে নিতে পারছে না মিঠাই (Mithai)। মায়ের মৃত্যুর কথা শুনে এক প্রকার পাথর হয়ে গিয়েছিল সে, ভুলে গিয়েছিল কাঁদতে। এতটাই শোকগ্রস্থ হয়েছে যে অস্বাভাবিক আচরন করছে মিঠাই। প্রথম থেকে মিঠাই ধারাবাহিকের মিঠাই চরিত্রটি ছিল দর্শকের প্রাণকেন্দ্র। কিন্তু মায়ের মৃত্যুর পর তাঁর এই করুণ পরিণতি কিছুতেই মেনে নিতে পারছেন না মিঠাই প্রিয় দর্শকেরা।

ধারাবাহিকের গল্প অনুযায়ী দেখা গিয়েছে, মিঠাইয়ের পাশে দাঁড়াতে সুদূর ব্যাঙ্গালোর থেকে ছুটে এসেছে সিদ্ধার্থ। মায়ের অস্থি বিসর্জনের দিন মিঠাইয়ের সাথে হাত মিলিয়েছে সে। নিজের প্রিয় দাদুর নাতিকে পেয়ে কান্নায় ভেঙ্গে পড়ে মিঠাই। সিদ্ধার্থের বুকে মাথা রেখে পাগলের মতো কাঁদতে শুরু করে। মিঠাইয়ের এই করুন অবস্থা চোখের কোনে জল এনেছে দর্শকদেরও। মিঠাই এর কান্না থামানোর জন্য মিঠাইকে আশ্বস্ত করে সিদ্ধার্থ জানায়, ‘ইউ হ্যাভ মি মিঠাই।’ সেই বলে যে কোনো পরিস্থিতিতে সব সময় মিঠাই তাকে পাশে পাবে।

মাতৃহারা মিঠাইকে ভালোবাসা দিয়ে আগলে রেখেছে উচ্ছেবাবু, সিডের মত বর চাইছে নেটিজেনরা

ওদিকে মিঠাইয়ের মায়ের যাবতীয় কাজ সেরে বাড়ি ফিরলে সকলেই চিন্তা করতে থাকে মিঠাইয়ের শরীর নিয়ে। সিদ্ধার্থ সবাইকে আশ্বস্ত করে বলেন মিঠাই এর কিছু হবে না সে তার পাশে আছে সবসময়। এমনকি আজকের এপিসোদে মিঠাইকে শাড়িও পরিয়ে দেবে সিদ্ধার্থ। উচ্ছেবাবুর এই নরম অবতার মন ছুয়ে গিয়েছে সকল দর্শকদের।

সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে বেশকিছু ক্লিপিংস। সেটিংস নজর কেড়েছে সবার। এখানে মন্তব্য বক্সে অনেকেই লিখেছেন, ‘এরকম বর চাই।’ একজন পোস্ট করেছেন নিজের ফেসবুক ওয়ালেও, সেখানে ক্যাপশনে চোখ রেখে দেখা গিয়েছে, ‘আচ্ছা সিডের মতো এরকম বর কি সত্যি হয়! পাওয়া যায় এমন কাউকে! এই সিরিয়ালটা এমনিতেই আমার খুব ভালো লাগে আর এই এপিসোডটা দেখার পর তো আরও ভালো লাগল।’

Related Articles

Back to top button