বিনোদনভাইরাল

টিআরপি টেবিলে মিঠাইয়ের রাজত্ব, শুটিং শেষে কব্জি ডুবিয়ে চিংড়ি খেলেন সৌমিতৃষা, রইল ভিডিও

বর্তমানে বাংলা টেলিভিশন ইন্ডাস্ট্রির সবচেয়ে জনপ্রিয় ধারাবাহিকগুলির মধ্যে অন্যতম হলো জি বাংলার (Zee Bangla) মিঠাই (Mithai)। প্রায় এক বছর ধরে টিআরপির (TRP) তালিকায় শীর্ষে অবস্থান করছে এই ধারাবাহিক। চলতি বছরের চৌঠা জানুয়ারি ধারাবাহিক মিঠাই দেখতে দেখতে পার করেছে এক বছর। এক বছর উপলক্ষে ছিল দর্শকদের জন্য বেশ কিছু চমকও। দর্শকরা ইতিমধ্যেই দেখেছেন উচ্ছেবাবু কীভাবে সম্পূর্ণ নিজেকে পাল্টে ফেলে মিঠাই, মিঠাইয়ের মা এবং ভাই গুলতির সাথে সমস্ত কলকাতা ঘুরেছে। তাদেরকে সঙ্গে নিয়ে গিয়েছিল এক বাঙালিয়ানা রেস্টুরেন্ট-এও।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by SOUMITRISHA (@soumitrishaofficial)

কিছুদিন আগেই মিঠাই ধারাবাহিকে সম্প্রচারিত হয়েছে এক বাঙালিয়ানা রেস্টুরেন্টে খাওয়া দাওয়ার দৃশ্য। তবে ক্যামেরার সামনে সেভাবে মিঠাইয়ের খাওয়া-দাওয়া না দেখা গেলেও অফস্ক্রিনে আসলে যে মিঠাই ঠিক কতটা খেতে ভালোবাসে তা ধরা পড়েছে। বরাবরই অভিনেত্রী সৌমিততৃষা কুন্ডু (Soumitrisha Kundoo) সামাজিক মাধ্যমে ভীষণই সক্রিয়। রয়েছে তাঁর ইউটিউব চ্যানেলও। সম্প্রতি সেই ইউটিউব চ্যানেলেই ধরা পড়েছে ক্যামেরার পিছনের কিছু দৃশ্য। যেখানে দেখা গিয়েছে সেই রেস্টুরেন্টে জমিয়ে খাওয়া-দাওয়া সারছে মিঠাই।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by SOUMITRISHA (@soumitrishaofficial)

কথায় কথায় অভিনেত্রী সৌমিতৃষা জানিয়েছেন, সে বরাবরই খেতে খুবই ভালোবাসে। খেতে ভালবাসলেও মাছ তাঁর পছন্দের খাবার নয়। শুধুমাত্র খেতে চিংড়ি মাছ তাঁর ফেভারিট, এ কথা জানে শুটিং সেটের সবাই-ই। তাই তাঁর জন্য শুটিংয়ের ফাঁকে আলাদা করে সরিয়ে রাখা হয়েছিল চিংড়ি মাছও। সকলের প্রিয় মিঠাই অর্থাৎ সৌমিতৃষা আরো জানিয়েছেন, তাঁর মাছে গন্ধ লাগে বলেই সে খেতে পারে না। চিংড়ি মাছ ছাড়াও মিঠাইয়ের পছন্দের তালিকার মধ্যে রয়েছে মটনও।


বর্তমানে ধারাবাহিকের গল্প অনুযায়ী, সকলকে ছেড়ে অজানার উদ্দেশ্যে পাড়ি দিয়েছে মিঠাইয়ের মা পার্বতী। মায়ের এভাবে হঠাৎ চলে যায় কিছুতেই মেনে নিতে পারছে না মিঠাই। মায়ের শোকে শুরু করেছে অস্বাভাবিক আচরণ, যা নিয়ে মনোহারা সকলেই খুব চিন্তিত। মিঠাই যাতে আবারো স্বাভাবিক জীবন-যাপন করতে পারে তা নিয়ে সকলেই উদ্বিগ্ন। আজকের এপিষদে দেখা যাবে কিভাবে গান গেয়ে পুরো পরিবার মিঠাইয়ের মন ভালো করছে! ফিরিয়ে আনছে তাকে স্বাভাবিক ছন্দে।

Related Articles

Back to top button