বিনোদন

বিয়ের পর মিঠাইকে ভালোবাসায় ভরিয়ে দেবেন উচ্ছেবাবু, প্রকাশ্যে এল ছবি

এবারে মোদক পরিবারের বড় বউ হয়ে গৃহে প্রবেশ করবে সকলের প্রিয় মিঠাই (Mithai)। তুফানমেল নতুন জীবনে পা বাড়াতেই সকলেই আনন্দে উচ্ছ্বসিত। মিঠাই ধারাবাহিকটি শুরু হওয়ার পর থেকেই দর্শক মহলে প্রবল জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। শুরুর দিন থেকে আজ অবধি শ্রেষ্ঠ স্থান দখল করে নিয়েছে এই ধারাবাহিক।

এর আগে সিদ্ধার্থের সাথে মিঠাই সাত পাকে বাঁধা পড়লেও এই প্রথম মিঠাইকে নিজের স্ত্রীর যোগ্য সম্মান দিয়েছে দাদুর নাতি। লাল শাড়ি, মাথা ঘুরতে লাল টকটকে সিঁদুর লাজে রাঙা নতুন বউ।

 

 

দর্শকেরা মিঠাইয়ের গৃহপ্রবেশ হিসেবে আজ ৩রা অক্টোবরের বিশেষ এপিসোড দেখেছে। দাদুর নাতি শেষমেষ মন থেকে বিয়ে মেনে নিয়েছে। বিয়ের আসরে বাবা সমরেশ ছাতনাতলায় ব্যাগড়া দিতে এলে তাঁকে সব জানিয়ে দিয়েছেন, ‘বিয়েটা আমি মন থেকে মেনে নিয়েছি।’

এবার থেকে শুরু হবে সিদ্ধার্থ এবং মিঠাই-এর নতুন দাম্পত্য জীবন। এই সিরিয়ালের প্রত্যেকটি খুঁটিনাটি বিষয়ে নজর এড়ায় না দর্শকদের। তেমনি আবারও এক বিষয়ে দর্শকদের নজর কেড়েছে। সেই বিষয়টি তুলে ধরা হয়েছে মিঠাইয়ের ক্লাবের পক্ষ থেকে।

ইতিমধ্যেই সামাজিক মাধ্যমে জনপ্রিয়তার শীর্ষে মিঠাই-এর দুই বিয়ের কোলাজ ছবি। প্রথম ছবিতে স্পষ্টই দেখা যাচ্ছে, প্রথমবার উচ্ছেবাবু মিঠাইয়ের সিঁথিতে সিঁদুর পরানোর সময় তুফানমেলের নাকে এক ছিটেফোঁটাও সিঁদুর পড়েনি। তবে এবারে নাকভর্তি লাল, জ্বলজ্বল করছে লাল টকটকে সিঁদুর। তাই মিঠাই প্রিয় দর্শকদের দাবি, ‘আগেরবার নাকে সিঁদুর পড়েনি, তাই বরের ভালোবাসা পায়ি, এবার নাকে সিঁদুর পড়েছে। আসলে প্রচলিত রয়েছে, সিঁদুরদানের সময় নাকের ডগায় সিঁদুরের গুঁড়ো পড়লে বর স্ত্রীকে বেশি ভালোবাসে, আজীবন বউয়ের বশে থাকে’।

বিয়ের পর মিঠাইকে ভালোবাসায় ভরিয়ে দেবেন উচ্ছেবাবু, প্রকাশ্যে এল ছবি

তবে পরবর্তীকালে সিদ্ধার্থ-মিঠাইয়ের তিল তিল করে সাজানো সংসারকে ভাঙতে কে আসবে তা তো নিশ্চিত! তোর্সা অর্থাৎ সকলের দুচোখের বিষ টেস বুড়ি নতুন ফন্দিও আঁটবে- তবে উচ্ছেবাবু এবং তুফানমেল ঠিক কীভাবে সব বাধা অতিক্রম করে নিজেদের ভালোবাসা টিকিয়ে রাখবে! কীভাবেই বা বিশ্বাসের কাঁধ একে অপরের সঙ্গে শক্তভাবে অটুট থাকবে! সবটাই এখন দেখার।

Related Articles

Back to top button