দেশনিউজবিনোদন

রিক্সা চালকের মেয়ের স্বপ্ন পূরণ, মাথায় উঠলো ‘মিস ইন্ডিয়া’র মুকুট

VLCC Femina Miss India 2020-র বিজয়ী হলেন তেলেঙ্গনার ইঞ্জিনিয়ার মনসা বারাণসী৷ মিস গ্র্যান্ড ইন্ডিয়া’ হলেন হরিয়ানার মনিতা শিখন্ড। যিনি এই প্রতিযোগিতায় রানার্স আপ হন তাঁর দিকেই চলে যায় সমস্ত লাইমলাইট টা। তাঁর নাম মান্য সিং (Manya Singh)। মান্য সিং (Manya Singh) বাস করতেন উত্তরপ্রদেশে। পেশাগতভাবে তাঁর বাবা ছিলেন একজন রিকশাচালক। এবার মিস ইন্ডিয়ার মঞ্চ থেকে মান্য (Manya Singh) নিজের লড়াইয়ের গল্প বলে লড়াইয়ে রসদ জোগালেন আরও বাকি মেয়েদের। মান্য (Manya Singh) জানিয়েছেন “সারা সকাল পড়াশুনো করতাম, থালাবাসন ধুতাম এবং রাতে কাজ করতাম কলসেন্টারে৷ রিকশা ভাড়া বাঁচানোর জন্য রাস্তায় পায়ে হেঁটে গন্তব্যে যেতাম৷ মিস ইন্ডিয়া হওয়ার পর বাবা, মা আমার ছোট ভাইয়ের জীবন শুধরোনো যায়৷ যখন নিজের স্বপ্ন তাড়া করে এগিয়ে যাব তখন এটা সফল হবে।”

কুশিনগরে তিনি জন্মান। কিন্তু তাঁর জন্মের পর থেকে বেড়ে ওঠার জন্য তাঁকে করতে হয় অসম্ভব লড়াই প্রতিকূলতার মধ্যে দিয়ে। কোনদিন হয়তো কেটেছে তাঁর না খেয়ে আবার কখনোবা তিনি পয়সা বাঁচানোর জন্য মাইলের পর মাইল হেঁটে চলেছেন। এমনকি পরীক্ষার টাকা জমা দেওয়ার জন্য তিনি বন্ধক দিয়েছিলেন তাঁর সামান্যতম গয়নাকে।

তবে সব সময় তাঁকে ভেতর থেকে লড়াই করার সাহস জুগিয়েছে তাঁর পড়াশোনা করার ইচ্ছাটি। তিনি ভেবেছিলেন তাঁর এই লড়াইয়ের পথে সবথেকে বড় অস্ত্র হল শিক্ষা। শিক্ষার আলোই তাঁর জীবনে একদিন আর্থিক কষ্টের অন্ধকারকে দূর করবে।

এইচএসসি- পরীক্ষার সময় মান্য (Manya Singh) সেরা পড়ুয়ার খেতাব জয় করেন৷ তাঁর অভাবের কারণে তাঁর সহপাঠীরাও তাঁকে নিয়ে তুচ্ছ তাচ্ছিল্য করত। অভাবের কারণে পড়ার বই, পোশাক জোগাড় করতে তাদের সমস্যা হতো। তবে তাঁকে লড়াইয়ে সব সময়ই মোটিভেট করেছেন তাঁর মা। ইতিমধ্যেই মান্য (Manya Singh) ম্যানেজমেন্ট পড়ার জন্য প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছেন।

Back to top button