বিনোদন

ফের দুঃসংবাদ টলিউডে! করোনা কাঁটায় ভেস্তে গেল ‘বাবান-রুচিরার’ বিবাহ অনুষ্ঠান?

মাঝে কিছুদিন পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলেও আবারো শুরু হয়েছে সংক্রমণ। করোনার বাড়বাড়ন্তে আবারো নাজেহাল বিশ্ববাসী। ইতিমধ্যেই বিশেষজ্ঞরা আশঙ্কা করছেন তৃতীয় ঢেউ আছড়ে পড়েছে। এই করোনার বাড়বাড়ন্ত জেরেই টলিউডে একাধিক অভিনেতা অভিনেত্রীর গাঁটছড়া বাঁধতে গিয়ে বাঁধা হয়নি।

ফের দুঃসংবাদ টলিউডে! করোনা কাঁটায় ভেস্তে গেল 'বাবান-রুচিরার' বিবাহ অনুষ্ঠান?

ইতিমধ্যে স্থগিত হয়েছে অভিনেত্রী ঋতাভরী চক্রবর্তীর (Ritabhari Chakraborty) বিয়ে। আবারও একই পথে হাঁটলেন টলিউডের বাবান এবং রুচিরা। অর্থাৎ সকলের প্রিয় অভিনেতা কৌশিক দাস এবং অভিনেত্রী শ্বেতা মিত্র।

ফের দুঃসংবাদ টলিউডে! করোনা কাঁটায় ভেস্তে গেল 'বাবান-রুচিরার' বিবাহ অনুষ্ঠান?

অনেকদিন ধরেই বিশেষ সম্পর্কে আবদ্ধ রয়েছেন দুজনে। চলতি মাসেই তাঁদের সাত পাকে বাঁধা পড়ার কথা থাকলেও করোনার বাড়বাড়ন্তের জেরেই স্থগিত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তাঁরা। বাতিল করতে বাধ্য হয়েছেন তাঁদের বিয়ের যাবতীয় অনুষ্ঠান। আজ বুধবার ইনস্টাগ্রাম পোস্টে এমনি মন খারাপের খবর শুনিয়েছেন দুজনে।

ফের দুঃসংবাদ টলিউডে! করোনা কাঁটায় ভেস্তে গেল 'বাবান-রুচিরার' বিবাহ অনুষ্ঠান?

বিয়ের অনুষ্ঠান এবং রিসেপশনের সব আয়োজন বাতিল হলেও বিয়েটা কিন্তু হচ্ছে নির্দিষ্ট দিনেই। সরকারি সমস্ত নিয়ম-নীতি মেনে কেবলমাত্র দুই পরিবার এবং কাছের বন্ধু নিয়েই দুজনের চার হাত এক করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। বর্তমান পরিস্থিতি খতিয়ে দেখে সরকারের নির্দেশিকা বলেছেন এই মুহূর্তে বিয়ের যে কোন অনুষ্ঠানের কমবেশি ৫০ জন উপস্থিত থাকতে পারে।

ফের দুঃসংবাদ টলিউডে! করোনা কাঁটায় ভেস্তে গেল 'বাবান-রুচিরার' বিবাহ অনুষ্ঠান?

ইনস্টাগ্রামে একটি বিবৃতি শেয়ার করে হবু বর-কনের লিখেছেন, ‘বর্তমান পরিস্থিতির জেরে সবার সুরক্ষার কথা মাথায় রেখে আমরা খুব ভারী মনে আমাদের বিয়ের রিসেপশন, এবং সব গেট টুগেদার স্থগিত রাথতে বাধ্য হচ্ছি। কিন্তু হ্যাঁ, বিয়েটা হচ্ছে। তবে সেই বিয়েতে আমাদের পরিবার এবং খুব কাছের বন্ধুরা হাজির থাকবে। মানা হবে সরকারের সব নির্দেশিকা’।

ফের দুঃসংবাদ টলিউডে! করোনা কাঁটায় ভেস্তে গেল 'বাবান-রুচিরার' বিবাহ অনুষ্ঠান?

অভিনেতা এবং অভিনেত্রী জানিয়েছেন, আগামীতে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে আবারও তাঁরা আত্মীয় বন্ধু-বান্ধব এবং প্রিয়জনের উপস্থিতিতেই সেলিব্রেশনে মত্ত হবেন। এখন বর্তমান পরিস্থিতি অনুযায়ী তাঁদের প্রার্থনা, করোনা দ্রুত বিদায় নিক।

Related Articles

Back to top button