বিনোদন

‘ছাগলে পাতাটা খেয়ে নিলে কী করতেন’? নেটিজেনের ট্রোলের মোক্ষম জবাব দিলেন কিয়ারা আদভানী

সেলিব্রিটিরা প্রায়‌ই সোশ্যাল মিডিয়ায় নানান রকম কটাক্ষের শিকার হন। কেউ সেই সমস্ত সমালোচনা কটাক্ষ কে সুকৌশলে এড়িয়ে চলেন কেউ আবার মুখের ওপর যোগ্য জবাব দিয়ে দেন। ঠিক সেইভাবেই ট্রোলারদের কটাক্ষের উচিত জবাব দিলেন কিয়ারা আদবানি(Kiara Advani)। শেরশাহ(Shershaah) ছবির নায়িকা কিয়ারা যে চুপ করে সমালোচনা হজম করার পাত্রী নন।

আরবাজ খানের টকশো প্রিঞ্চ সিজন 2 এ উপস্থিত হয়ে তিনি বলেন যে সেলিব্রেটিদের নিয়ে সাধারণ মানুষের সব সময় একটা কৌতুহল থাকে, আর এই কৌতুহল করতে করতে তারা কখনও কখনও ব্যক্তিগত স্তরে আক্রমণ করে বসেন। কিয়ারা স্পষ্ট বলে দেন যে, তার পক্ষে সবাইকে খুশি করা সম্ভব নয়। তারকাদের সবকিছু নিয়েই মানুষ বিচার করা শুরু করে দেন। তিনি যদি পাপারাৎজিদের ক্যামেরার সামনে দাঁড়িয়ে ছবি না তোলেন, তাহলে তাকে অহংকারী ধরে নেওয়া হবে! কিন্তু হয়তো সেই সময় তিনি হয়ত কাজের তারাই আছেন তা কেউ বুঝবে না।

ট্রোলিং নিয়ে কিয়ারা আর মাথা ঘামান না, কারণ তার গায়ের চামড়া মোটা হয়ে গেছে। কিন্তু তিনি তার পরিবারকে এই সমস্ত কিছুর মধ্যে জড়াতে চান না।
কিয়ারা এখন চান না যে, তার পরিবারকে নিয়ে কেউ ট্রোলিং করুন। তার অনেক তুতো ভাই বোনেরা আছে যারা সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করেন, কিন্তু তিনি ভাই-বোনেদের জন্মদিনের ছবি ও সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেন না, কারণ তিনি চান না তাদের মধ্যে‌ কেউ ট্রোলড হোক।

২০২০ তে ডাব্বু রাত্নানির ক্যামেরায় একটি হট ছবি তুলেছিলেন কিয়ারা। যেখানে দেখা গিয়েছিল যে, বিরাট পাতার আড়ালে নিজের অনাবৃত শরীর ঢেকে রাখছেন তিনি। এই নিয়ে সেইসময় চরম ট্রোলিং এর শিকার হয়েছিলেন অভিনেত্রী। একজন লিখেছিলেন যে, “ ছাগলে পাতাটা খেয়ে ফেললে কী করতেন?” উত্তরে কিয়ারা বলেন, “ইশশশশ” এর পাশাপাশি তিনি আরো বলেন যে, “আমি নিজেও জানিনা এটা মানুষজন কীভাবে নিয়েছেন! কিন্তু উনি ডাব্বু রত্নানি। এই ধারণাটা ডাব্বুর মাথাতেই আসতে পারে… এটা খুব নান্দনিকভাবে শুট করা হয়েছিল।”

Related Articles

Back to top button