বিনোদনভাইরাল

Khorkuto: বেডরুমে তিন্নির সঙ্গে অন্তরঙ্গ সৌজন্য, হাতেনাতে ধরে ফেলল গুনগুন, ভাইরাল ভিডিও

এবারে বড়োসড়ো টুইস্ট স্টার জলসার পর্দায়। বড়োসড়ো টুইস স্টার জলসার খড়কুটোয়। আগে থেকেই গুনগুনের দিদি তিন্নিদিকে নিয়ে ফ্যামিলিতে ঝামেলা লেগেই থাকে। এত ঝামেলার মধ্যে আবার বিজয়ার দিনে বাবিনের হাত থেকে সিঁদুর পড়ে গিয়েছে তিন্নিদির মাথায়। ফের তারপর থেকেই তিন্নিকে দেখা গিয়েছে একেবারে বাবিনের জন্য পাগল হয়ে উঠেছে। নিজেদের সম্পর্কের মাঝে তৃতীয় ব্যক্তির প্রবেশ কিছুতেই মেনে নিতে পারছে না গুনগুন। একেবারে নিজের দিদি এই কাজ করছে দেখে রীতিমতো ঝামেলা লেগে গিয়েছে সংসারে।

তবে গুনগুন অবাক হয়ে গিয়েছে সৌজন্যের কথায়। সৌজন্য তাকে বলেছে সে ইনস্টিটিউটে আছে। কিন্তু সবাই মিলে ইনস্টিটিউটে পৌঁছে সেখানে বুঝতে পারে সে নেই। ফোন করলেও সে জন্য বারবার ফোনে বলতে থাকে সেই রাতে সেই মুহূর্তে কোথায় আছে তার বিষয়ে জানাতে পারবে না কাউকেই। ওদিকে আবার তিন্নিদির বাড়ি গিয়ে তিন্নির সাথেই বেডরুমে ঘনিষ্ঠ অবস্থায় পাওয়া যায় সৌজন্যকে। যদিও সৌজন্যেকে জোর করেই জড়িয়ে ধরেছিল তিন্নি। কিন্তু পরিবারের সকলের কাছে মিথ্যে বলার জন্য বিশ্বাস ভেঙেছে সকলের।

সবকিছু দেখে হতবাক গুনগুন। বাবিন বারবার গুনগুনের সাথে একা কথা বলতে চাইলেও কিছুতেই রাজি হয়না পটকা এবং পরিবারের সদস্যরা। বরং পরিবারের সকলকে এমনকি নিজের স্ত্রীকে মিথ্যে বলার জন্য বেশ ক্ষেপে গেছে সবাই।

যদিও এভাবে গুনগুন এবং বাবিনের মাঝে কোন রকম তৃতীয় ব্যক্তির প্রবেশ মেনে নিতে পারছে না দর্শক মহল ও। এত ভালো এক জুটিকে ভেঙে দেয়ার জন্য ফের সামাজিক মাধ্যমে কটাক্ষের শিকার হতে হয়েছে লেখিকা নীনা গঙ্গোপাধ্যায়কে। এমনকি মন্তব্য বাক্স-এ চোখ রেখে দেখা গিয়েছে কেউ কেউ বলছেন তারা আর এই ধারাবাহিক দেখতে চান না।

Related Articles

Back to top button