বিনোদন

‘সিঁদুর পরে হিন্দুদের বোকা বানিয়েছেন নুসরত’, বিয়ে নিয়ে অভিনেত্রীকে একহাত নিলেন দিলীপ ঘোষ

এই মুহূর্তে বাংলার সবচেয়ে আলোচিত বিষয় নুসরাত জাহান। ব্যক্তিগত একাধিক ইস্যুতে জেরবার এই সাংসদ অভিনেত্রী। অভিযোগ, পাল্টা অভিযোগে নুসরত-নিখিল বিবাদ বিগত কয়েকদিন ধরেই ঝড় তুলেছে। এবার এই বিবাদ পরিণত হলো রাজনৈতিক ইস্যুতে। বৃহস্পতিবার বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ তৃণমূল সাংসদকে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করলেন। বিজেপি সভাপতির দাবি, ভোট পেতে সিঁদুর লাগিয়ে হিন্দুদের বোকা বানিয়েছেন নুসরাত।

বৃহস্পতিবার বিজেপির আইটি সেলের প্রধান অমিত মালব্য ট্যুইট করেন এই বিষয়ে। ট্যুইটে তিনি লেখেন, “নুসরাত জাহান বিবাহিত না অবিবাহিত এটা তার একান্তই ব্যক্তিগত ব্যাপার। কিন্তু তিনি একজন নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি। সংসদের রেকর্ড বলছে নিখিল জৈনের সাথে তার বিয়ে হয়েছে। তাহলে কি তিনি মিথ্যে কথা বলছেন?” এই প্রসঙ্গেই দিলীপ ঘোষ মন্তব্য করেন, “বসিরহাটের মানুষেরা তাকে সাংসদ করেছেন। এখন আপনারাই ঠিক করুন উনি বিয়ে করেছেন কিনা, কাকে করেছেন, কবে করেছেন।”

দিলীপ ঘোষ আরও বলেন, “উনি মা হতে চলেছেন সে নিয়েও প্ৰশ্ন আছে। ভেবে দেখুন, যাকে আড়াই লক্ষের বেশি ভোটে জিতিয়েছেন, তিনি কে বা তার পরিচয় কি? বিয়ে না করে সিঁদুর লাগিয়ে হিন্দুদের বোকা বানিয়ে ভোট নিয়েছেন উনি। এটা খুবই লজ্জার বিষয়। আমার মনে হয় তিনি নির্বাচনের জন্য বিয়ে করেছিলেন, নির্বাচন হয়ে গিয়েছে এখন সত্যি কথা বেরিয়ে এসেছে।”

এদিকে নুসরাত কান্ড থেকে ইতিমধ্যেই নিজেদের দূরে সরাতে শুরু করেছে তৃণমূল। এদিন তৃণমূলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষ ট্যুইটে বলেন, “প্রসঙ্গ নুসরাত জাহান। বিষয়টি তার একান্তই ব্যক্তিগত। এর সঙ্গে রাজনীতি বা দলের কোনও সম্পর্ক নেই। বিজেপির মালব্য এসব নিয়ে টুইট না করাই ভালো। তর্ক শুরু হলে বিজেপির পক্ষে ভাল হবে না। তৃণমূল মানুষের কাজ নিয়ে ব্যস্ত।”

Back to top button