বিনোদন

পর্দার প্রেম পরিণতি পায়নি বাস্তবে, প্রসেনজিতের সঙ্গে প্রেম নিয়ে মুখ খুললেন ‘ছোট বউ’ দেবিকা

আশির দশকের প্রায় শেষের দিকে রিলিজ হয়েছিল পরিচালক অঞ্জন চৌধুরীর ‘ছোট বউ’, সেই সিনেমা সুপারহিট হয়। নায়ক-নায়িকার চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় (Prosenjit Chattopadhyay) ও দেবিকা মুখার্জী (Devika Mukherjee)। সিনেমার দৃশ্যে গোলাপি রঙের শাড়ি পরে, কপালে ছোট্ট লাল টিপ মাথায় জুঁই ফুলের মালা দিয়ে নায়িকা দেবিকা সমুদ্রসৈকতে নায়ক প্রসেনজিতের চোখে চোখ রেখে গানের মাধ্যমে প্রেম নিবেদন করেছিলেন, তাঁদের মধ্যের রসায়ন সেইসময় দর্শকদের বেশ পছন্দ হয়েছিল।

কখন‌ও কোনো অভিনেতার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক তৈরী হয়েছিল কিনা সে কথা জিজ্ঞাসা করলে দেবিকা উত্তর দেন,”প্রেম হলেও বলব না। তবে হ্যাঁ, প্রেম তো করেইছি। আমার জীবনে প্রথম পুরুষ তো আমার স্বামী নন। প্রেম না করে কেউ শিল্পী হতে পারেন না।’ এর সাথে তিনি বলেন,”বলবো না কার সঙ্গে প্রেম হয়েছিল। সে এখন পরিবার নিয়ে রয়েছে। এখন বললে অযথা আমার জন্য ঝগড়া হতে পারে, অকারণে কেস খেয়ে যাব। কিন্তু, ভালো তো বেসেছি।” বর্তমান সময় সম্পর্কে তিনি বলেন, ”এখনকার হিরোইনরা কত ডিপ্লোম্যাটিক ভাবে প্রেম করছেন।”

পর্দার প্রেম পরিণতি পায়নি বাস্তবে, প্রসেনজিতের সঙ্গে প্রেম নিয়ে মুখ খুললেন 'ছোট বউ' দেবিকা

১৯৮৮ সালে মুক্তি পাওয়া ‘ছোট ব‌উ’ সিনেমার মাধ্যমে জনপ্রিয়তা লাভ করেছিলেন দেবিকা। শুটিং করতে করতে প্রসেনজিতের সঙ্গে তাঁর বেশ বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক তৈরী হয়েছিল। দেবিকা জানান,”প্রসেনজিতের সঙ্গে বরাবরই ভালো সম্পর্ক। ও একটা অন্য উচ্চতায় পৌঁছে গিয়েছে। ছেলেটি খুব ভালো। আমার সর্দি হয়েছে। আমায় একটা ওষুধ দিল, বলল তুমি যেন কাল ভালো করে শুটিং করতে পারো। ওঁর থেকে খুব সহযোগিতা পেয়েছি। একটা মানুষ শুধু রাজনীতি করে ওরকম উঁচু জায়গায় উঠতে পারে না। নিশ্চয়ই তাঁর নিজস্ব কর্মক্ষমতা রয়েছে, রাজনীতি করতে হয়েছে নিজের জান বাঁচানোর জন্য। বুম্বার সঙ্গে এখনও ভালো সম্পর্ক রয়েছে।”

পর্দার প্রেম পরিণতি পায়নি বাস্তবে, প্রসেনজিতের সঙ্গে প্রেম নিয়ে মুখ খুললেন 'ছোট বউ' দেবিকা

‘ছোট বউ’ সিনেমায় অভিনয়ের সুযোগ পাওয়া প্রসঙ্গে দেবিকা বলেন,”কালীঘাটে মায়ের সঙ্গে পুজো দিয়ে বাড়ি ফিরে দেখি অঞ্জনদা বসে আছেন। আমায় দেখেই বললেন, ওঁর পরের সিনেমার নায়িকা আমি। এ যেন মায়ের আশীর্বাদ। ছোট বউ খুব হিট করেছিল। আমি তারপর আর সেভাবে সিনেমা করিনি। কিন্তু, আজও মানুষ মনে রেখেছেন। এটা আমার কাছে আশীর্বাদের মতো।”

Related Articles

Back to top button