বিনোদন

‘বুড়ো বয়সে ন্যাকামি’! দিদি নং ১-এ রচনার জায়গা দখল করে ট্রোলের মুখে সুদীপা

বর্তমানে বাংলা টেলিভিশনের অন্যতম গেম শো হল দিদি নাম্বার ওয়ান (Didi No 1)। বছরের পর বছর এই গেম শো এর জনপ্রিয়তা হার মানিয়েছে যেকোনো নন ফিকশন রিয়্যালিটি শোকেও। অভিনেত্রী রচনা ব্যানার্জীর (Rachana Banerjee) হাত ধরে এই গেম শো পেরিয়ে এসেছে প্রায় এক দশক। তবে সম্প্রতি অভিনেত্রী রচনা ব্যানার্জীর বাবা মারা যাওয়ায় তিনি কাছ থেকে কিছুদিনের জন্য বিরতি নিয়েছেন। আর সেই কারণেই দিদি নাম্বার ওয়ানের পর্দায় রচনা ব্যানার্জীর বদলে সঞ্চালনা করতে দেখা যাচ্ছে অভিনেত্রী তথা রান্নাঘরের রানী সুদিপা চ্যাটার্জী (Sudipa Chatterjee)। সঙ্গে রয়েছেন অভিনেতা সৌরভ দাস (Sourav Das) ও।

তবে অভিনেত্রী সুদীপা ব্যানার্জির সঞ্চালনা মেনে নিতে পারছেন না অনেক দর্শক এই। তারা রচনা ব্যানার্জীর জায়গায় সুদিপাকে দেখতে চান না এমনও দাবি করেছেন। ওদিকে অভিনেত্রী রচনা ব্যানার্জি নিজের বাবাকে হারিয়ে গভীর শোকাচ্ছন্ন হয়ে পড়েছেন। গত ১৬ ই নভেম্বর হূদরোগে আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত হয়েছেন অভিনেত্রী বাবা রবীন্দ্রনাথ ব্যানার্জি। বাবা প্রয়াত হওয়ার পরেই রীতিমতো ভেঙে পড়েছিলেন। তারপরে বাবাকে ঘিরে একের পর এক স্মৃতি এবং নিজের মন খারাপ তুলে ধরেছেন সামাজিক মাধ্যমের দেওয়ালে।

অধিকাংশ দর্শকদের মতে রচনা ব্যানার্জি ছাড়া অন্যকেও দিদি নাম্বার ওয়ান এর সঞ্চালনায় করতে পারেন না। কার্যত তারা বলেই বসেছেন দিদি নাম্বার ওয়ান এর পর্দায় রচনা ব্যানার্জি ছাড়া আর কাউকে মানায় না। সম্প্রতি জি বাংলা (Zee Bangla) চ্যানেল এর পক্ষ থেকে শেয়ার করা হয়েছে একটি নতুন ভিডিও। সেই ভিডিওর কমেন্ট বক্সে নিজেরা নিজেদের ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। এক নেটিজেন কমেন্ট বক্সে লিখে বসেছেন, ‘সুদিপার বুড়ো বয়সে ন্যাকামি দেখার চেয়ে যতদিন না রচনা ব্যানার্জী আসছেন ততদিন এই শো বন্ধ থাকুক’।

'বুড়ো বয়সে ন্যাকামি'! দিদি নং ১-এ রচনার জায়গা দখল করে ট্রোলের মুখে সুদীপা

এখানেই শেষ নয়, অপর এক নেটিজেনদের মতে, ‘সুদিপাকে চাই না। সুদিপা রাঁধুনি ওটাই মানায়, সঞ্চালনা মানায় না’। আবার অন্যজনের মতে, ‘সঞ্চালিকা পরিবর্তন হয়েছে, দিদি নং ১ চললে হয়’। এমন অজস্র মন্তব্যে চোখে পড়েছে কমেন্ট বক্সে।

'বুড়ো বয়সে ন্যাকামি'! দিদি নং ১-এ রচনার জায়গা দখল করে ট্রোলের মুখে সুদীপা

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য বাবা মারা যাওয়ার পর এই একটি ছবি অভিনেত্রী রচনা ব্যানার্জি ফেসবুকে পোস্ট করে লিখেছিলেন, ‘ ভাবিনি একদিন একা হয়ে যাবো। ভাবিনি তুমি চলে যাবে এখনও অনেকগুলো বছর তোমাকে ছাড়া কাটাতে হবে। তোমার আশীর্বাদ আমাদের সাথে আছে আমি জানি। থাকবো…. থাকতে হবে। তুমি ভালো থেকো বাপি’।

Related Articles

Back to top button