বিনোদন

চাকরি কেড়ে নেবেন না, সৌরভকে করজোড়ে আর্তি অমিতাত বচ্চনের! মুহূর্তে ভাইরাল ভিডিও

কৌন বনেগা ক্রোড়পতির সিজন-১৩ (Kaun Banega crorepati) শুরু হয়ে গেছে ইতিমধ্যে। গত সপ্তাহে থেকেই এই শো সোনি টিভিতে(Sony TV) দেখা যাচ্ছে। তবে টিভির পাশাপাশি সোনি লিভ অ্যাপ ও জিও টিভি অ্যাপেও দেখা যাচ্ছে এই শো। দুই সপ্তাহ যেতে না যেতেই এই শোয়ের জনপ্রিয়তা একেবারে তুঙ্গে।

কৌন বনেগা ক্রোড়পতির ১৩ নং সিজনে প্রতি শুক্রবার একটি বিশেষ পর্ব থাকে, যেখানে অমিতাভ বচ্চনের(Amitabh bacchan) মুখোমুখি হট সিটে বসেন তারকারা। এইবারে শানদার শুক্রবারের পর্বে কেবিসির মঞ্চে হাজির হয়েছিলেন আমাদের মহারাজ সৌরভ গাঙ্গুলী (Sourav Ganguly) ও বীরেন্দ্র সেহবাগ(Virendra Sehbag)। সেই পর্বের প্রোমো ইতিমধ্যেই ভাইরাল হয়ে গেছে।

চাকরি কেড়ে নেবেন না, সৌরভকে করজোড়ে আর্তি অমিতাত বচ্চনের! মুহূর্তে ভাইরাল ভিডিও

ভাইরাল সেই ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে যে, অমিতাভ বচ্চন প্রায় করজোড়ে সৌরভ কে অনুরোধ করে বলেছেন একটি বিশেষ কাজ না করতে, কারণ সৌরভ সেটি করলে তার কেবিসির চাকরিটি চলে যেতে পারে।

চাকরি কেড়ে নেবেন না, সৌরভকে করজোড়ে আর্তি অমিতাত বচ্চনের! মুহূর্তে ভাইরাল ভিডিও

গেম শুরুর আগে সৌরভ ও সেহবাগের কেবিসির মঞ্চে আসা প্রসঙ্গে অমিতাভ বচ্চন বলেন,“কেবিসির শুটিং ইউনিট অত্যন্ত সৌভাগ্যবান যে তাদের শো তে আসতে রাজি হয়েছেন সৌরভ ও সেহবাগ।” বিগ বি কে কথা শেষ করতে না দিয়েই সৌরভ গাঙ্গুলী বলেন যে, এক্ষেত্রে অনুমতির কোনো ব্যাপার নেই, তাদের কে বলা হয়েছিল যে, বচ্চন সাব তাদের এই শোয়ে দেখতে চাইছেন সেই কথা শুনে তারা তড়িঘড়ি এখানে এসে হাজির হয়েছেন। বিগবি ডাকলে তারা যখন যেখানেই থাকুন না কেন, তাদের এসে হাজিরা দিতে হবে।-সৌরভের এই কথার ধাঁচ শুনে হেসে ফেলেন সেহবাগ ও অমিতাভ, এরপরই অমিতাভ চাকরি চলে যাওয়ার প্রসঙ্গটি উত্থাপন করেন।

২০০১ সালে টস করার আগে ২২ গজে স্টিভকে দাঁড় করিয়ে রাখবার বিতর্কিত ঘটনার পিছনে থাকা রহস্যের কথাও ঐদিন মঞ্চে বলেন সৌরভ। কথাপ্রসঙ্গে বিগবি দর্শকদেরকে বলেন যে বাংলাতে যদি কখনো কেবিসি হয় তাহলে তার দায়িত্ব সামলাবেন সৌরভ গাঙ্গুলী,আর সৌরভ গাঙ্গুলী যদি কেবিসির দায়িত্ব সামলান তাহলে বিগবির চাকরি চলে যাবে, তিনি বিপদে পড়ে যাবেন। অমিতাভ বচ্চন যদিও পুরো কথাটিই মজা করে বলেছেন তবুও সেই কথা বলার ধরনে সৌরভ ও সেহবাগ হেসে উঠেছেন, হাসতে শুরু করেছেন দর্শকেরাও।

Related Articles

Back to top button