নিউজবিনোদনরাজ্য

‘নির্বাচনে হেরে কন্ডোমের দোকান দেবেন সায়নী’, অভিনেত্রীকে একহাত নিলেন বিজেপি প্রার্থী অগ্নিমিত্রা পাল

আবারও কন্ডোম বিতর্কে জড়িয়ে পড়লেন অভিনেত্রী সায়নী ঘোষ। ২০১৫ সালে এডস-এর সচেতনতা বৃদ্ধি করতে তিনি শিবলিঙ্গ-র মাথায় কন্ডোম পড়ানোর। একটি কার্টুন পোস্টার নিজের স্যোশাল মিডিয়া হ্যান্ডেলে পোস্ট করেন। এবছর এই নিয়ে আবারো বিতর্কে জড়িয়ে পড়েন তিনি। তার দিকে ধেয়ে আসে একের পর এক কটূক্তি। এমনকি তাকে খুনের হুমকিও দেন একশ্রেণীর লোক। তবে এখনও সেই বিতর্ক তাকে মুক্তি দেয়নি। এই ভোট যুদ্ধে পুরোনো বিতর্ক আবার ফিরে এলো।

এবার সায়নী ঘোষের দিকে কটাক্ষবাণ ছুঁড়ে দিলেন বিজেপি প্রার্থী অগ্নিমিত্রা পাল। বিজেপির মহিলা মোর্চার সভাপতি হলেন অগ্নিমিত্রা পাল। এর আগে দল বিরোধী কথা বলার জন্য বিজেপি থেকে তাকে শোকজ ও করা হয়েছিল। তবে সম্প্রতি নাম না করেই কটাক্ষবানে বিঁধলেন আসানসোল দক্ষিণের তৃণমূল প্রার্থী সায়নী ঘোষকে।

তিনি বলেন উনি তো রাজনীতির কিছূই জানেন না। এতদিন সিনেমা করেছেন তাই না জানাই স্বাভাবিক। এরপর দোসরা মে-র পর তিনি হয়তো কন্ডোমের দোকান খুলবেন বা অন্য কোনো প্রফেশনে যাবেন বা হয়তো সিনেমাই করবেন। তার এই বক্তব্য থেকে স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে তিনি সায়নী ঘোষের দিকেই ইঙ্গিত করেছেন। তিনি এও বলেন যে সায়নী নিজেই জানেন না যে সে কোন দলের প্রার্থী হয়েছেন বা কার হয়ে প্রচার চালাচ্ছেন। তিনি এও মনে করিয়ে দেন যে দুই বছর আগে নন্দন চত্বরে দাঁড়িয়ে সায়নী মমতা ব্যানার্জিকে তুলোধনা করেছিলেন এখন মমতা ব্যানার্জিকেই নিজের গুরু মা ভাবছেন।

অবশ্য অগ্নিমিত্রা পালের এই বক্তব্যকে খুব একটা গুরুত্ব দেননি অভিনেত্রী। সায়নী শুধু বলেন অগ্নিমিত্রা পাল নিজের এই ধরনের বক্তব্যের মাধ্যমে নিজের নিম্ন রুচির পরিচয় দিয়েছেন। নিজের বড় হয়ে ওঠা এবং বংশ পরিচয় বুঝিয়েছেন। তিনি আরও বলেন যত দিন যাচ্ছে ততই ভালো করে বোঝা যাচ্ছে অগ্নিমিত্রা পাল কতটা নিম্নমানের রাজনীতিবিদ। সায়নী বলেন একসময় অগ্নিমিত্রা পাল তাকে বাচ্চা বলতেন কিন্তু সিনিয়র হয়েও কিভাবে এরকম এক মন্তব্য করেছেন তা তিনি জানেন না। তাই এবিষয়ে মন্তব্য করে সায়নী নিজেকে নীচে নামাতে চান না। তবে এখন বাংলার মানুষ ভোটের রেজাল্টের জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছেন।

Back to top button