বিনোদন

সকলের সামনে রেখাকে জোর করে চুমু খেয়েছিলেন প্রসেনজিৎ-এর বাবা বিশ্বজিৎ চট্টোপাধ্যায়

পর্দায় তো দেখা যায় অনেক কিছুই। নায়ক-নায়িকার ঘনিষ্ঠ রোম্যান্সের দৃশ্য, চুম্বনদৃশ্য, আরো অনেক কিছুই। কিন্তু অনেক ক্ষেত্রেই তা নায়িকার সম্মতি ছাড়াই, কখনো বা বলপূর্বক, করা হয়ে থাকে। রুপোলি পর্দার কালো দিকগুলোর কথা অনেক সময়েই প্রকাশ্যে আসে না। কাস্টিং কাউচ, নেপোটিজম ইত্যাদি তো আছেই, সেই সঙ্গে নারী-নির্যাতন বা ‘মিটু’র মত অভিযোগও নতুন কিছু নয়, কিন্তু অনেক সময়েই পরিস্থিতির চাপে নায়িকারা বাধ্য হয়েছেন পরিচালকের মত মতো কাজ করতে। এবং এ ঘটনা শুধু বর্তমানের নয়, হয়েছে অতীতেও। ঠিক যেমন একবার পরিস্থিতির শিকার যেমন বলিউডের এভারগ্রীন নায়িকা রেখা (Rekha / Bhanurekha Ganesan)-কেও।

রেখার আত্মজীবনীমূলক গ্রন্থ ‘রেখা : দ্য আনটোল্ড স্টোরি (Rekha : The Untold Story)’ তে এমনই একটি ঘটনার কথা রয়েছে। লেখক ইয়াসির উসমান (Yasser Usman) এর কলমে উঠে এসেছে বহু ঘটনাই। ফিল্ম-কেরিয়ার, উত্থান-পতন, সেই সাথে বলিউডের শাহেনশা অমিতাভ বচ্চন (Amitabh Bachchan)-এর সাথে প্রেম, সম্পর্কে ভাঙন, বিয়ে, ব্যক্তিগত জীবন, সবকিছুই। তার মধ্যেই উল্লিখিত রয়েছে সেই বিশ্রী, কুরুচিকর ঘটনার কথা, যা রেখাকে সহ্য করতে হয়েছিল তাঁর নাবালিকা বয়সেই।

সকলের সামনে রেখাকে জোর করে চুমু খেয়েছিলেন প্রসেনজিৎ-এর বাবা বিশ্বজিৎ চট্টোপাধ্যায়

সেটা ১৯৬৯ সাল। কুলজিৎ পাল পাল (Kujit Pal)-এর পরিচালনায় ‘আনজানা সফর (Anjaana Safar)’ ছবির শ্যুটিং চলছে বম্বের মেহবুব স্টুডিও (Mehboob Studio)-তে। ছবিতে রয়েছেন রেখা, আর রয়েছেন বিশ্বজিৎ চট্টোপাধ্যায় (Biswajit Chatterjee)। প্রসেনজিতের পিতা বিশ্বজিৎ সেসময় বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা। ছবির প্রয়োজনে একটি চূম্বনদৃশ্যের দরকার ছিল। সেসময় রেখার বয়স মাত্র ১৫ বছর। তাঁকে বিন্দুমাত্রও অবগত না করে একটি প্ল্যান ছকা হয়।

সকলের সামনে রেখাকে জোর করে চুমু খেয়েছিলেন প্রসেনজিৎ-এর বাবা বিশ্বজিৎ চট্টোপাধ্যায়

প্ল্যানমাফিক শ্যুটিংয়ের সময় পরিচালক ‘অ্যাকশন ‘বলামাত্রই বিশ্বজিৎ রেখাকে জড়িয়ে ধরে চুমু খেতে শুরু করেন। আশ্চর্যের বিষয়, প্রায় ৫ মিনিট ধরে টানা তিনি রেখাকে চুম্বন করেন, এবং পরিচালক একবারের জন্যেও ‘কাট’ বলেননি। উল্টে দৃশ্যটি তোলা হয়ে গেলে ইউনিটের লোকজন সিটি মেরে হাততালি দিয়ে অভিবাদন জানান বিশ্বজিতকে। গোটা ঘটনার আকস্মিকতায় লজ্জায়, ঘৃণায় স্তম্ভিত হয়ে গিয়েছিলেন ১৫ বছর বয়সী রেখা।

সকলের সামনে রেখাকে জোর করে চুমু খেয়েছিলেন প্রসেনজিৎ-এর বাবা বিশ্বজিৎ চট্টোপাধ্যায়

‘আনজানা সফর’ অবশ্য তখনই মুক্তি পায়নি। বহুবার সেন্শর বোর্ডে আটকে যাওয়ার পর, শেষে ১০ বছর বাদে ‘দো শিকারী (Do Shikaari)’ নামে মুক্তি পায় ছবিটি, ১৯৭৯ সালে।

Related Articles

Back to top button